২৫০ টাকার কাঁচা মরিচ এখন ২৫ টাকা

প্রকাশিত: ৫:৫৩ অপরাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ৪, ২০২২

অনলাইন ডেস্ক : দিনাজপুর জেলার হিলি স্থলবন্দরে এক সময় ২৫০ টাকায় বিক্রি হওয়া কাঁচ মরিচ এখন ২৫ টাকা কেজিতে নেমে এসেছে। আর দেশি কাঁচ মরিচের সরবরাহ বৃদ্ধি পাওয়ায় ও লোকসানের আশংকায় ভারত থেকে কাঁচ মরিচ আমদানি বন্ধ রেখেছেন আমদানিকারকরা।

হিলি স্থলবন্দরে এক মাস আগে কাঁচ মরিচের কেজি ছিল ২০০ থেকে ২৫০ টাকা। দেশি কাঁচা মরিচের প্রভাব এরই মধ্যে পড়তে শুরু করেছে পাইকারি বাজারে। দিন দিন কমছে কাঁচা মরিচের দাম। এক সপ্তাহের ব্যবধানে কাঁচা মরিচের দাম পাইকারিতে কেজিপ্রতি ৩৫ টাকা কমেছে। এক সপ্তাহে আগেও বন্দরে প্রতিকেজি কাঁচা মরিচ ৬০ টাকা দরে বিক্রি হয়েছিল। তবে বর্তমানে দাম কমে ২৫ টাকায় বিক্রি হচ্ছে।দেশীয় বাজারে কাঁচা মরিচের দাম কমায় আমদানিকারকরাও হিলি স্থলবন্দর দিয়ে ভারত থেকে কাঁচা মরিচ আমদানি বন্ধ করে দিয়েছেন।

আমদানিকারকরা জানান, ভারতের চেয়ে বাংলাদেশে কাঁচা মরিচের দাম কম। এলসির মাধ্যমে কাঁচা মরিচ আমদানি করলে লোকসান গুণতে হবে। তাই কাঁচা মরিচ আমদানি করছি না।

হিলি স্থলবন্দরের বাজার ঘুরে দেখা যায়, কাঁচা মরিচ পাইকারি বিক্রি হচ্ছে প্রকারভেদে ২৫ টাকা কেজি দরে। গত সপ্তাহে এই কাঁচা মরিচ বিক্রি হয়েছিল ৬০ থেকে ৪০ টাকা কেজি দরে। সপ্তাহের ব্যবধানে কাঁচা মরিচের দাম কমেছে কেজিতে ৩৫ টাকা।

কাঁচা মরিচ ব্যবসায়ী বিপ্লব শেখ বলেন, কয়েক দিন ধরে আবহাওয়া ভালো থাকায় দেশের বিভিন্ন অঞ্চলে কাঁচা মরিচের উৎপাদন ভালো হয়েছে। এতে মোকামগুলোতে কাঁচা মরিচের সরবরাহ আগের তুলনায় বেড়েছে। আগে শুধু বগুড়া থেকে কাঁচা মরিচ আসছিল। এখন নওগাঁসহ আশপাশের এলাকা থেকেও আসছে কাঁচা মরিচ। এতে বাজারে কাঁচা মরিচের সররবাহ অনেকটাই বেড়েছে গেছে। মোকামে আমরা যেমন কম দামে কাঁচা মরিচ কিনতে পারছি,তেমনি বাজারে কম দামে বিক্রিও করতে পারছি।

এদিকে হিলি কাস্টম্স সূত্রে জানা যায়,গত শনিবার (৬ আগস্ট) থেকে (২৪ আগস্ট) বৃহস্পতিবার পর্যন্ত ভারত থেকে ৬ লাখ ৪২ হাজার ৯৭৫ কেজি কাঁচা মরিচ আমদানি হয়েছে এই বন্দর দিয়ে।