মোটরসাইকেলে টিকটক করতে গিয়ে মেয়রপুত্র নিহত

প্রকাশিত: ১০:৫৭ অপরাহ্ণ, জানুয়ারি ৫, ২০২২

অনলাইন ডেস্ক : মোটরসাইকেলে টিকটক করতে গিয়ে মেয়রপুত্রসহ জয়পুরহাট জেলার বিভিন্ন স্থানে পৃথক দুর্ঘটনায় ৩ জনের মৃত্যু হয়েছে। বুধবার দুপুর বেলায় জয় পুরহাটের গতনশহর দ্বিমুখী দাখিল মাদ্রাসার শিক্ষক হাজেরা খানম (৩৮) জয়পুরহাট শহরের জামালগঞ্জ সড়কের বিহারীপাড়া এলাকায় মোটরসাইকেল থেকে পড়ে গেলে তার উপর ট্রাক চলে যায়।
এতে ঘটনাস্থলে তিনি মৃত্যুর কোলে ঢলে পড়েন। হাজেরা খানম জয়পুরহাট সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের শিক্ষক বজলুর রশিদের স্ত্রী।

অপরদিকে জয়পুরহাটের পাঁচবিবিতে মোটরসাইকেল চালিয়ে টিকটক করতে গিয়ে হৃদয় হোসেন (২১) নামে এক যুবকের মৃত্যু হয়েছে। এ ঘটনায় আহত হয়েছে আরও ৬ জন। আজ বিকেলে জেলার পাঁচবিবি উপজেলার জয়পুরহাট-হিলি সড়কের দরগাপাড়া এলাকায় এ দুর্ঘটনা ঘটে।

পাঁচবিবি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) পলাশ চন্দ্র দেব জানান, নিহত হৃদয় হোসেন জয়পুরহাটের কালাই পৌরসভার বর্তমান মেয়র রাবেয়া সুলতানার ছেলে।

আহতরা হলেন নওগাঁর বদলগাছী উপজেলার নুর মোহাম্মদের ছেলে আল আমিন (৪০), একই উপজেলার সবুজ উদ্দিনের ছেলে মাসুদ রানা (৪০), জয়পুরহাটের কালাই উপজেলার আল আমিন (৩০), একই উপজেলার মৃত বনু মিয়ার ছেলে নাজমুল (৩০), ছাদেকুল ইসলামের ছেলে মো. রনি (২০), মোজাফফর হোসেনের ছেলে মো. ছাব্বির (৩০), হারুঞ্জা গ্রামের বুলবুলের ছেলে নাজমুল (২২)।

ওসি পলাশ চন্দ্র আরও জানান, হৃদয় হোসেন ও তার কয়েকজন বন্ধু মিলে জয়পুরহাট-হিলি সড়কে মোটরসাইকেল চালিয়ে টিকটক ভিডিও করছিলেন। এ সময় তাদের মোটরসাইকেল নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে হিলির দিকে আসা অপর ২টি মোটর সাইকেলের সাথে মুখোমুখী সংঘর্ষ হলে কালাই পৌর মেয়র রাবেয়া সুলতানার ছেলে হৃদয় ঘটনাস্থলেই মারা যান। এ সময় গুরুতর আহত হন আরও ৬ জন। খবর পেয়ে পাঁচবিবি ফায়ার সার্ভিস কর্মীরা নিহত ও আহতদের উদ্ধার করে আহতদের জয়পুরহাট আধুনিক জেলা হাসপাতালে ভর্তি করেন। আহতদের মধ্যে রনি, আলামিন ও সাব্বিরের অবস্থা আশঙ্কাজনক হওয়ায় তাদের বগুড়া শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়েছে।

এদিকে পাঁচবিবি উপজেলার বালিঘাটা ইউনিয়নের মাথখুর গ্রামের আবু বক্কর সিদ্দিকের মেয়ে সিনথিয়া গ্যাসবড়ি খেয়ে আত্মহত্যা করেছে। স্কুলপড়ুয়া সিনথিয়ার বয়স ১৪ বছর। বর্তমানে আধুনিক জেলা হাসপাতালের মর্গে লাশ ময়নাতদন্তের প্রক্রিয়া চলছে বলে জানান ওসি পলাশ চন্দ্র দেব।

Facebook Notice for EU! You need to login to view and post FB Comments!