বুরকিনা ফাসোতে সশস্ত্র গোষ্ঠীর হামলা, নিহত ৪১

প্রকাশিত: ১২:৫৬ অপরাহ্ণ, ডিসেম্বর ২৭, ২০২১

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : বুরকিনা ফাসোতে সশস্ত্র গোষ্ঠীর হামলায় ৪১ জন নিহত হয়েছেন। হতাহতের ঘটনা নিশ্চিত করে দেশটির সরকার জানিয়েছে, উত্তরাঞ্চলে ওই হামলার ঘটনা ঘটেছে। রবিবার (২৬ ডিসেম্বর) আল-জাজিরার এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়।

সরকার এক বিবৃতিতে জানিয়েছে, নিহতদের মধ্যে সরকার-সমর্থিত বেসামরিক আত্মরক্ষা বাহিনীর সদস্যরা রয়েছেন। যারা মাদারল্যান্ড প্রতিরক্ষা স্বেচ্ছাসেবক (ভিডিপি) নামে পরিচিত। মূলত দেশটির সেনাবাহিনীকে সাহায্য করতেই এটি প্রতিষ্ঠা করা হয়।

জানা গেছে, সশস্ত্র গোষ্ঠীটি আফ্রিকার কয়েকটি দেশে তাদের কর্মকাণ্ড পরিচালনা করছে। এরমধ্যে মালি, বুরকিনা ফাসো ও নাইজার অন্যতম। এসব দেশের কৃষক ও পশুপালকদের মধ্যে ধর্মীয় ও নৃতাত্ত্বিক উসকানি দিয়ে উত্তেজনা সৃষ্টি করছে গোষ্ঠীটি।

বুরকিনা ফাসোর সেনাবাহিনী সহিংসতার বিস্তার রোধে লড়াই চালিয়ে যাচ্ছে। গত বছর সেনাবাহিনীকে সাহায্য করার জন্য তৈরি করা হয় ভিডিপি। কিন্তু দেশটির সশস্ত্র গোষ্ঠীটি তাদরে লক্ষ্য করে ধারাবাহিকভাবে হামলা চলাচ্ছে। এতে নিহত হচ্ছে অনেক বেসামরিক নাগরিকও।

এ ধরনের সহিংসতায় এখন পর্যন্ত দুই হাজার মানুষ নিহত হয়েছেন ও বাস্তুচ্যুত হয়েছেন প্রায় ১৫ লাখ। মূলত রাজনৈতিক সংকটের কারণেই দেশটিতে নিরাপত্তা হুমকি দেখা দিয়েছে।

দেশটির বিরোধী দল ও সুশীল সমাজ বারবার নিরাপত্তা ইস্যুতে সরকারের ব্যবস্থাপনায় অসন্তোষ প্রকাশ করেছেন। আফ্রিকার এ দেশটিতে গত মাসে আল-কায়দার সঙ্গে সম্পর্কিত সশস্ত্র গোষ্ঠীর হামলায় ৪৯ সেনা ও চারজন বেসামরিক নাগরিক নিহত হয়। এ মাসের শুরুর দিকেও হয়েছে বেশ কয়েকটি হামলা। প্রাণ হারিয়েছেন সরকার সমর্থিত বাহিনীর সদস্যরা।

তবে এরই মধ্যে সশস্ত্র গোষ্ঠীর বিরুদ্ধে অভিযান পরিচালনা করছে দেশটির সেনাবাহিনী। বুরকিনা ফাসো ও নাইজারের সেনাবাহিনী জানিয়েছে তাদের যৌথ অভিযানে সীমান্ত এলাকায় ১০০ সন্ত্রাসী নিহত হয়েছেন। তাছাড়া আটক করা হয়েছে ২০ সন্দেহভাজনকে। ২৫ নভেম্বর থেকে ৯ ডিসেম্বর পর্যন্ত এ অভিযান চালানো হয়।