গৌরীপুরে সরকারি নির্দেশনা উপেক্ষা করেই আলুর কেজি ৫০ টাকা!

প্রকাশিত: ১২:৪৬ পূর্বাহ্ণ, অক্টোবর ১৯, ২০২০

কমল সরকার, গৌরীপুর, (ময়মনসিংহ) প্রতিনিধি : সারা দেশের ন্যায় ময়মনসিংহের গৌরীপুরের বাজারগুলোতে সরকারি নির্দেশনা উপেক্ষা করেই আলু বিক্রি হচ্ছে ৫০ টাকা কেজি দরে।

শনিবার (১৭ অক্টোবর) বাজারগুলো ঘুরে দেখা যায় আলু ব্যবসায়ীরা ভোক্তা পর্যায়ে আলু বিক্রি করছে ৫০ টাকা কেজি দরে। বুধবার (১৪ অক্টোবর) কৃষি বিপনন অধিদপ্তর আলুর দাম কেজি প্রতি খুচরা পর্যায়ে ৩০টাকা, পাইকারী পর্যায়ে ২৫ টাকা এবং হিমাগার পর্যায়ে ২৩ টাকা নির্ধারন করে মাঠ পর্যায়ে দাম নিয়ন্ত্রণ করার জন্য সকল জেলা প্রশাসককে চিঠি প্রদান করেছেন। এই দামে আলু বিক্রি না হলে প্রশাসন ও ভোক্তা অধিকার কর্তৃপক্ষের পক্ষে শাস্তিমূলক ব্যবস্থা গ্রহণের কথা বলেছেন।

সরকারের কৃষি মন্ত্রণালয়ের দায়িত্বপ্রাপ্ত মন্ত্রী ড. আব্দুর রাজ্জাক (১৬ অক্টোবর) বিশ্ব খাদ্য দিবসের প্রেস ব্রিফিংয়ে একই কথা বলেছেন।
এই নির্দেশনার ৪ দিন পেরিয়ে গেলেও বাজারগুলোতে এখনও আলু ৫০ টাকা দরে বিক্রি হচ্ছে। এ ব্যাপারে ভোক্তা পর্যায়ে ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছে।
গৌরীপুরে বাজার করতে আসা ভোক্তারা বলেছেন, দেশ কারা চালাচ্ছে বুঝতে পারছি না। সরকারের নির্দেশও মানছে না। তিনি আরো বলেন, এখন পর্যন্ত আলুর দাম নিয়ন্ত্রণে প্রশাসনের পক্ষ থেকে কোন পদক্ষেপ চোখে পড়ছে না।

উল্লেখ্য যে, কৃষি বিপনন অধিদপ্তরের মহাপরিচালক মোহাম্মদ ইউসুফ বুধবার (১৪ অক্টোবর) বলেন, কৃষকেরা এ বছর ১০ থেকে ১২ টাকা কেজি দরে আলু বিক্রি করেছে। কয়েক হাত ঘুরে হিমাগারে রাখার খরচসহ হিসাব কষলে তা কোনোভাবেই ২০ টাকার বেশি হয় না। তারপরেও হিমাগার থেকে ২৩ টাকা কেজি দরে আলু বিক্রি করতে বলা হয়েছে। পাইকারী ও খুচরা পর্যায়েও যথেষ্ট যৌক্তিক মুনাফা ধরেই দাম বেঁধে দেওয়া হয়েছে।
এ বিষয়ে জানতে চাইলে গৌরীপুর উপজেলা নির্বাহী অফিসার হাসান মারুফ রাহাত, জেলা প্রশাসন থেকে আলুর দাম নিয়ন্ত্রণ করার জন্য চিঠির কথা স্বীকার করে বলেছেন, আলুর দাম সহনীয় পর্যায়ে রয়েছে।