হালুয়াঘাটের ব্যবসায়ীরা সরকারি প্রণোদনা থেকে বঞ্চিত

প্রকাশিত: ১:০৪ অপরাহ্ণ, অক্টোবর ১৭, ২০২০

জোটন চন্দ্র ঘোষ, হালুয়াঘাট : করোনা মহামারীতে সারাদেশের ন্যায় হালুয়াঘাটেও করোনার প্রাদুর্ভাবে ব্যবসায়ীরা ব্যাপকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হলেও সরকার কর্তৃক ঘোষিত প্রণোদনার ন্যায্য অধিকার থেকে বঞ্চিত হচ্ছেন ব্যবসায়ীরা।

স্থানীয় ব্যবসায়ী নাদিম আহমেদসহ একাদিক ব্যবসায়ীরা জানায়, আমরা দীর্ঘদিন যাবত স্বল্প সুদে সরকার কর্তৃক ঘোষিত প্রণোদনা (ঋণ) পাওয়ার জন্য একাধিকবার ব্যাংকে যোগাযোগ করলেও শুধুমাত্র হালুয়াঘাট সাব-রেজিষ্ট্রার অফিস কর্তৃক এনওসি সরবরাহ না করার কারনে প্রণোদনা থেকে বঞ্চিত হচ্ছেন।

হালুয়াঘাট জনতা ব্যাংক শাখার শাখা ব্যবস্থাপক নূর মোহাম্মদ জানায়, করোনায় ক্ষতিগ্রস্থ ব্যবসায়ীদের আমরা প্রণোদনা দিতে প্রস্তুত। শুধুমাত্র এনওসি না থাকায় গ্রাহকদের আমরা প্রণোদনা ঋণ দিতে পারছিনা। যদি ব্যবসায়ীরা এনওসি সরবরাহ করতে না পারে তবে সরকারি প্রণোদনা ফেরত যাওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে।

হালুয়াঘাট সোনালী ব্যাংক শাখার ব্যবস্থাপক আশরাফুল ইসলাম জানান, এ বিষয়ে আমরা উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে সৃষ্ট সমস্যা সমাধান কল্পে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য অবগত করেছি। উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের পরামর্শ ক্রমে সমস্যার সমাধান করা হবে।

হালুয়াঘাট ব্যবসায়ী উন্নয়ন সমিতির সভাপতি সাহাব উদ্দিন ওমর সাকী জানায়, আমাদের অনেক ব্যবসায়ীরা সাব রেজিষ্ট্রার কর্তৃক সরবরাহকৃত এনওসি না পেয়ে ব্যাংক ঋণ থেকে বঞ্চিত হয়ে পুজি সংগ্রহ করতে না পাড়ায় মানবেতর জীবন যাপন করছেন।

হালুয়াঘাট উপজেলা সাব-রেজিষ্টার আয়েশা সিদ্দিকা সাংবাদিকদের বলেন, ২০০৪ সাল থেকে ২০১৫ সাল পযন্ত আমাদের ভলিয়ম আপডেট আছে। বাকী ৫ বছর আপডেট না থাকায় আমরা এনওসি দিতে পারছিনা। তবে ব্যবসায়ীরা আমাদের সাথে যোগাযোগ করলে জেলা সাব রেজিষ্টারের সাথে আলোচনা সাপেক্ষে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

এ বিষয়ে উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোঃ রেজাউল করিম বলেন, সরকারি প্রণোদনা ব্যবসায়ীদের প্রাপ্য অধিকার। তবে সকল অফিস এক সিস্টেমে পরিচালিত হয়। আমি আহবান জানাব উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের সাথে কথা বলে সাব রেজিষ্টার প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করবেন।