হাইকমিশনার মোয়াজ্জেম আলী মারা গেছেন

প্রকাশিত: ৪:৩২ অপরাহ্ণ, ডিসেম্বর ৩০, ২০১৯

স্টাফ রিপোর্টার : ভারতে নিযুক্ত বাংলাদেশের সদ্যসাবেক হাইকমিশনার সৈয়দ মোয়াজ্জেম আলী মারা গেছেন। সোমবার (৩০ ডিসেম্বর) বেলা ১১টা ৫৫ মিনিটে ঢাকার সম্মিলিত সামরিক হাসপাতালে তিনি শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন (ইন্নালিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজিউন)।

বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন আন্তঃবাহিনী জনসংযোগ পরিদফতরের (আইএসপিআর) পরিচালক লে. কর্নেল আবদুল্লাহ ইবনে জায়েদ।

তিনি জানান, সৈয়দ মোয়াজ্জেম আলী দূরারোগ্য ব্যাধিতে ভুগছিলেন।

সৈয়দ মোয়াজ্জেম আলীর মৃত্যুতে গভীর শোক ও দুঃখ প্রকাশ করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

সাবেক এই পররাষ্ট্র সচিবকে ২০১৪ সালে ভারতে বাংলাদেশের হাইকমিশনার হিসেবে নিয়োগ দেয় সরকার। সম্প্রতি নতুন হাইকমিশনারের হাতে দায়িত্ব হস্তান্তর করে অবসরে যান তিনি।

পররাষ্ট্র সচিব হিসেবে ২০০১ সালের ১১ মার্চ থেকে ১৭ জুলাই পর্যন্ত দায়িত্ব পালন করেন সৈয়দ মোয়াজ্জেম আলী। ১৯৯৯ সালে একুশে ফেব্রুয়ারিকে আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস হিসেবে জাতিসংঘের শিক্ষা, বিজ্ঞান ও সাংস্কৃতিক সংস্থা-ইউনেসকোর স্বীকৃতি আদায়ের প্রক্রিয়ায় তিনি ফ্রান্সে বাংলাদেশের তৎকালীন রাষ্ট্রদূত হিসেবে গুরুত্বপূর্ণ দায়িত্ব পালন করেন।

পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় জানায়, সৈয়দ মোয়াজ্জেম আলী ১৯৬৮ সালে সেন্ট্রাল সুপিরিয়র সার্ভিস এক্সামিনেশনের মাধ্যমে তৎকালীন পাকিস্তানের ফরেন সার্ভিসে যোগ দেন। ১৯৭১ সালের ৪ আগস্ট যুক্তরাষ্ট্রের ওয়াশিংটনে পাকিস্তান দূতাবাসে কর্মরত অবস্থায় তিনি পাকিস্তানের প্রতি আনুগত্য প্রত্যাহার করে বাংলাদেশ সরকারের প্রতি আনুগত্য প্রকাশ করেন। এরপর তিনি ওয়াশিংটনে স্বাধীন বাংলাদেশের দূতাবাস প্রতিষ্ঠা করেন।

সৈয়দ মোয়াজ্জেম আলী পেশাদার কূটনীতিক হিসেবে ভুটান, ইরান ও ফ্রান্সে বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছেন। এছাড়া তিনি ওয়াশিংটন, ওয়ারশ, নয়াদিল্লি ও জেদ্দায় বাংলাদেশ মিশনে বিভিন্ন পদে দায়িত্ব পালন করেন। তিনি দৈনিক কালের কণ্ঠে নিয়মিত কলাম লিখতেন।

সৈয়দ মোয়াজ্জেম আলী ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে প্রাণীবিদ্যায় এমএসসি ডিগ্রি অর্জন করেন। ব্যক্তিজীবনে তিনি বিবাহিত ও দুই সন্তানের জনক।

অনিয়ম করলে বিমানে চড়া বন্ধ : মন্ত্রী-এমপিদের প্রধানমন্ত্রী