| | বৃহস্পতিবার, ২রা কার্তিক, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ, ১৭ই সফর, ১৪৪১ হিজরী |

ময়মনসিংহ মেডিকেলে ১৫৩ ডেঙ্গু রোগী

প্রকাশিতঃ ৫:২০ অপরাহ্ণ | জুলাই ৩১, ২০১৯

অনলাইন ডেস্ক :ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ (মমেক) হাসপাতালে প্রতিদিনই বাড়ছে ডেঙ্গু রোগীর সংখ্যা। গত কয়েক দিনে ডেঙ্গু জ্বরে আক্রান্ত হয়ে মোট ১৫৩ জন এই হাসপাতালে ভর্তি আছেন।

চিকিৎসকরা জানিয়েছেন মমেক হাসপাতালে আসা ডেঙ্গু রোগীদের সবাই ঢাকায় আক্রান্ত হয়ে সেখানে এসেছেন। অনেকে আবার ডেঙ্গু আতঙ্কে স্বাভাবিক জ্বর নিয়ে হাসপাতালে ভিড় করছেন। তাদেরকে পরীক্ষা করে ডেঙ্গুর কোনো জীবানু পাওয়া যায়নি

এদিকে মমেকে হাসপাতালে আলাদা কোনো ওয়ার্ড না থাকায় ডেঙ্গু আক্রান্তদের মধ্যে শিশুদের ৩১ নং ওয়ার্ডে, নারীদের র ১১, ১২ ও ২৭ নং ওয়ার্ডে এবং পুরুষদের ১৩, ১৪ ও ১৫ নং ওয়ার্ডে চিকিৎসা দেয়া হচ্ছে। ডেঙ্গু রোগীর সব ধরনের পরীক্ষা হাসপাতালে বিনামূল্যে করা হচ্ছে। পাশাপাশি তাদের বিনামূল্যে সরবরাহ করা হচ্ছে মশারি।

মমেক হাসপাতালে চিকিৎসাধীন মুশফিকুর রহমান বলেন, তিনি রাজধানীর আলহাজ মকবুল হোসেন কলেজের শিক্ষার্থী। হোস্টেলে থাকাকালীন ডেঙ্গু জ্বরে আক্রান্ত হন। গত ৬ দিন ধরে এই হাসপাতালে ভর্তি আছেন।

Mymensingh2

মঙ্গলবার রাতে জ্বর ও পেটে ব্যাথা নিয়ে হাসপাতালে ভর্তি হন জেলার ফুলবাড়িয়া উপজেলার গৌরীপুর গ্রামের তারা মিয়ার মেয়ে সাদিয়া (১১)। রাতেই পরীক্ষা করে তার শরীরে পাওয়া যায় ডেঙ্গুর জীবাণু।

মমেক হাসপাতালের সহকারী পরিচালক ডা. এবি শামসুজ্জামান সেলিম বলেন, এই এলাকায় বসবাস করে ডেঙ্গু জ্বরে আক্রান্ত হয়েছেন এমন রোগী এখন পর্যন্ত পাওয়া যায়নি। চিকিৎসাধীন সবাই রাজধানী থেকে ডেঙ্গুতে আক্রান্ত হয়ে এখানে চিকিৎসাধীন আছেন।

তিনি বলেন, আজ (৩১জুলাই) সকাল পর্যন্ত মোট ১৫৩ জন ডেঙ্গু আক্রান্ত রোগী এই হাসপাতালে ভর্তি আছেন। স্থান সংকুলান না হওয়ায় সাধারণ মেডিসিন ওয়ার্ডে অন্য রোগীদের সঙ্গেই ডেঙ্গু আক্রান্তদের চিকিৎসা দেয়া হচ্ছে।

তিনি আরও বলেন, ডেঙ্গু রোগের নির্ধারিত কোনো ওষুধ না থাকায় তাপমাত্রা কমানোর জন্য শুধু প্যারাসিটামল দেয়া হচ্ছে। পাশাপাশি বেশি করে পানি ও তরল খাবার খাওয়ার পরামর্শ দেয়া হচ্ছে।

Matched Content

দৈনিক সময় সংবাদ ২৪ ডট কম সংবাদের কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি,আলোকচত্রি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে র্পূব অনুমতি ছাড়া ব্যবহার করা সর্ম্পূণ বেআইনি। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে যে কোন কমেন্সের জন্য কর্তৃপক্ষ দায়ী নয়।


Shares