| | বৃহস্পতিবার, ৪ঠা আশ্বিন, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ, ১৯শে মুহাররম, ১৪৪১ হিজরী |

নিখোঁজের আট দিন পর পাটক্ষেত থেকে মহিলার গলিত লাশ উদ্ধার

প্রকাশিতঃ ৯:৪৩ অপরাহ্ণ | জুন ২৮, ২০১৯

নিজস্ব প্রতিবেদক : নিখোঁজ হওয়ার আট দিন পর পাটক্ষেত থেকে পুলিশ পুষ্প রানী দাস নামে এক মহিলার নগ্ন গলিত লাশ উদ্ধার করেছে। তিনি সাতক্ষীরার তালা উপজেলার ইসলামকাটি ইউনিয়নের মনোহরপুর গ্রামের মৃত মনোরঞ্জন দাসের স্ত্রী।

মৃতের ছেলে জয়দেব দাস জানান, গত ২০ জুন বিকেলে তার মা পুষ্প রানী দাস (৪২) বাড়ী থেকে বেরিয়ে আর ফেরেনি। সম্ভাব্য সব জায়গায় খোঁজাখুজি করে না পেয়ে ভাই মহাদেব দাস গত ২২ জুন তালা থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি করে। সর্বশেষ শুক্রবার সকাল ১০ টার দিকে স্থানীয় বারাত বিলের জনৈক কেসমত দপ্তরীর পাটক্ষেতের পাশে ঘাষ কাটতে গ্রামের কয়েকজন দুর্গন্ধযুক্ত এক মহিলার লাশ দেখতে পেয়ে তালা থানায় খবর দেয়। পরে পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে পুষ্পরাণীর উলঙ্গ গলিত লাশ উদ্ধার করে। ধারণা করা হচ্ছে তাকে ধর্ষণ শেষে হত্যা করে কেউ সেখানে ফেলে রেখেছে।

তবে স্থানীয় একটি সূত্র মতে দু’ বছর আগে পুষ্প রানী দাসের স্বামী মনোরঞ্জন দাস মারা যান। সুশ্রী পুষ্প রানী এরপর থেকে অন্যের জমিতে কাজ করতেন। এ সময় স্থানীয় এক বিবাহিত মুসিলের সঙ্গে তার সম্পর্ক গড়ে ওঠে। এটা ওই মুসলিম পরিবারের সদস্যরা মেনে নিতে পারতো না। এরই জের ধরে পুষ্প রানীকে ধর্ষণের পর হত্যা করে লাশ পাটক্ষেতে ফেলে রেখে দেওয়া হয় বলে ধারণা করা হচ্ছে।

কোস্টগার্ডের অভিযানে গাঁজাসহ যুবতি আটক

তালা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মেহেদী রাসেল জানান, খবর পেয়ে তিনিসহ তালা সার্কেলের সহকারী পুলিশ সুপার হুমায়ুন কবির ঘটনাস্থল থেকে পুষ্প রাণীর উলঙ্গাবস্থায় গলিত লাশ উদ্ধার করেছেন। ধারণা করা হচ্ছে, তাকে ধর্ষণ শেষে হত্যা করে সেখানে লাশ ফেলে রাখা হয়েছে। পুষ্পরাণী দুই ছেলে ও এক কণ্যা সন্তানের জননী। লাশের ময়না তদন্তের জন্য সাতক্ষীরা সদর হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে। এ ঘটনায় মামলার প্রস্তুতি চলছিল।

Matched Content

দৈনিক সময় সংবাদ ২৪ ডট কম সংবাদের কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি,আলোকচত্রি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে র্পূব অনুমতি ছাড়া ব্যবহার করা সর্ম্পূণ বেআইনি। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে যে কোন কমেন্সের জন্য কর্তৃপক্ষ দায়ী নয়।


Shares