| | শুক্রবার, ৮ই ভাদ্র, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ, ২২শে জিলহজ্জ, ১৪৪০ হিজরী |

ভারতের ২ যুদ্ধবিমান বিধ্বস্ত, ২ পাইলট আটক : পাকিস্তান

প্রকাশিতঃ ৮:২৪ অপরাহ্ণ | ফেব্রুয়ারি ২৭, ২০১৯

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : ভারত-পাকিস্তানের সীমান্তে তুমুল উত্তেজনাকে আরও এক কাঠি এগিয়ে দিচ্ছে দু’দেশের সংবাদমাধ্যমের পাল্টাপাল্টি প্রচারণা। দুই দেশের আন্তঃবাহিনী জনসংযোগ পরিদপ্তরও (আইএসপিআর) এক্ষেত্রে পিছিয়ে নেই। ভারতীয় সংবাদমাধ্যমে দেশটির বিমান বাহিনীর একটি যুদ্ধবিমান বিধ্বস্ত হওয়ার খবর পাওয়া গেলেও পাকিস্তান দাবি করছে, ভারতীয় বাহিনীর দু’টি যুদ্ধবিমান ভূপাতিত করেছে তারা। এরমধ্যে একটি বিধ্বস্ত হয়েছে ভারতনিয়ন্ত্রিত কাশ্মীরে, আরেকটি ভেঙে পড়েছে পাকিস্তাননিয়ন্ত্রিত আজাদ কাশ্মীরে।

বুধবার (২৭ ফেব্রুয়ারি) সকালে ভারতীয় সংবাদমাধ্যমে তাদের একটি যুদ্ধবিমান বিধ্বস্ত হওয়ার খবর দেওয়ার পর পাকিস্তানের সংবাদমাধ্যমে দু’টি যুদ্ধবিমান ভূপাতিত করার দাবি করা হয়।

বুদগাম শহরের গারেন্দ কালান গ্রামের একটি উন্মুক্ত মাঠে যুদ্ধবিমানটি বিধ্বস্ত হয় জানিয়ে সিনিয়র পুলিশ সুপার (এসএসপি) স্থানীয় সংবাদমাধ্যমকে বলেন, এখন পর্যন্ত আমরা দু’টি মরদেহ উদ্ধার করেছি।

তবে এর পরপরই ইসলামাবাদভিত্তিক প্রভাবশালী সংবাদমাধ্যম ডনের খবরে বলা হয়, পাকিস্তানের বিমান বাহিনী নিজস্ব আকাশসীমা থেকে সীমান্তের নিয়ন্ত্রণরেখার (লাইন অব কন্ট্রোল) আশপাশে হামলা চালিয়েছে।

দেশটির আন্তঃবাহিনী জনসংযোগ পরিদপ্তরের (আইএসপিআর) মহাপরিচালক মেজর জেনারেল আসিফ গফুর বলেন, পাকিস্তানের বিমান বাহিনী ভারতের দু’টি যুদ্ধবিমান ভূপাতিত করেছে। একটি ভেঙে পড়েছে (পাকিস্তাননিয়ন্ত্রিত) আজাদ কাশ্মীরে, আরেকটি পড়েছে ভারতনিয়ন্ত্রিত কাশ্মীরে।

এরপর আজাদ কাশ্মীরে ভেঙে পড়া যুদ্ধবিমানের বেশ কিছু ছবি সংবাদমাধ্যমে পাঠায় আইএসপিআর।

পরে এক সংবাদ সম্মেলনে মেজর জেনারেল গফুর দাবি করেন, এই ঘটনায় দু’জন ভারতীয় পাইলটকে আটক করা হয়েছে। একজনের অবস্থা গুরুতর বিধায় তাকে সম্মিলিত সামরিক হাসপাতালে (সিএমএইচ) ভর্তি করা হয়েছে। আরেকজন সামরিক বাহিনীর কাছেই আছে।

এরপর পাকিস্তানের জিওটিভি, এআরওয়াই নিউজ চ্যানেলসহ কয়েকটি সংবাদমাধ্যমে দাবি করা হয়, আটক এক পাইলট তার স্বীকারোক্তিতে জানিয়েছেন- তিনি উইং কমান্ডার অভি নন্দন, ভারতীয় বিমান বাহিনীতে তার সার্ভিস নম্বর ২৭৯৮১।

গত ১৪ ফেব্রুয়ারি বিকেলে কাশ্মীরের পুলওয়ামা জেলায় ভারতের বিশেষায়িত নিরাপত্তা বাহিনী সেন্ট্রাল রিজার্ভ পুলিশ ফোর্সের (সিআরপিএফ) গাড়িবহরে ভয়াবহ জঙ্গি হামলায় ৪৪ জওয়ান নিহত হন।

জঙ্গিদের মদত দেওয়ার জন্য ইসলামাবাদকে অভিযুক্ত করে এর মোক্ষম জবাব দিতে গত ২৬ ফেব্রুয়ারি ভোরের দিকে পাকিস্তানের বালাকোট শহরে জঙ্গি গোষ্ঠী জইশ-ই-মোহাম্মদের আস্তানায় হামলা চালায় ভারতীয় বিমান বাহিনী। হামলায় প্রায় ৩০০ জঙ্গি নিহত হয় বলে দাবি করে ভারত।

এর একদিন পরই ভারতের দু’টি যুদ্ধবিমান বিধ্বস্ত ও দু’জন পাইলট আটক করার দাবি করলো পাকিস্তান।

Matched Content

দৈনিক সময় সংবাদ ২৪ ডট কম সংবাদের কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি,আলোকচত্রি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে র্পূব অনুমতি ছাড়া ব্যবহার করা সর্ম্পূণ বেআইনি। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে যে কোন কমেন্সের জন্য কর্তৃপক্ষ দায়ী নয়।


Shares