| |

আইসিইউতে আব্দুল জব্বার

প্রকাশিতঃ 1:52 pm | August 02, 2017

বিনোদন ডেস্ক : কালজয়ী গানের কণ্ঠশিল্পী আব্দুল জব্বার দীর্ঘদিন ধরে অসুস্থ। কিডনি, হার্ট, প্রস্টেটসহ নানা জটিলতায় আক্রান্ত হয়ে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয়ে গত আড়াই মাস ধরে চিকিৎসাধীন রয়েছেন স্বাধীন বাংলা বেতার কেন্দ্রের এই কণ্ঠসৈনিক। ক্রমশ তার শারীরিক অবস্থার অবনতি হচ্ছে।

গতকাল ১ আগস্ট তার শারীরিক অবস্থা বেশি খারাপ হওয়ায় ডাক্তার তাকে দ্রুত আইসিইউতে নেওয়ার পরামর্শ দিয়েছেন। তিনি এখন আইসিইউতে রয়েছেন বলে আব্দুল জব্বারের ছোট ভাই মাসুদ জানান।

এ প্রসঙ্গে মাসুদ বলেন, ‘ভাইয়ের অবস্থা এখন বেশি ভালো না। গতকাল দুপুরে বেশি অসুস্থ হয়ে পড়েন। এর পরই তাকে আইসিইউতে রাখা হয়। তাকে সপ্তাহে তিন দিন ডায়ালাইসিস করাতে হচ্ছে। ডাক্তার গত ১৫ জুলাই জানিয়েছেন- বিদেশ নিয়ে যেতে। কিন্তু আর্থিক সংকটে তা এখনো করতে পারছি না।’

সরকার আব্দুল জব্বারের চিকিৎসার দায়িত্ব নিয়েছে বলে কিছুদিন আগে গণমাধ্যমে খবর প্রকাশিত হয়। তবে এর কোনো অগ্রগতি হয়নি বলে জানান তিনি। এ প্রসঙ্গে মাসুদ বলেন, ‘মাননীয় প্রধানমন্ত্রী দুই বছর আগে বিশ লাখ টাকার সঞ্চয়পত্র দিয়েছিলেন। মাননীয় সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের, স্বাস্থ্যমন্ত্রী নাসিম, সংস্কৃতিমন্ত্রী আসাদুজ্জামান নূর হাসপাতালে দেখতে এসেছিলেন। তারা উন্নত চিকিৎসার জন্য সহযোগিতার আশ্বাসও দিয়েছেন। কিন্তু এখন পর্যন্ত আমরা কোনো সাহায্য পাইনি। আমরা নিজেরাও মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে দেখা করতে চেষ্টা করছি।’

এই কালজয়ী শিল্পীর উন্নত চিকিৎসার জন্য আনুমানিক ৮০ লাখ থেকে ১ কোটি টাকা প্রয়োজন। কিন্তু শিল্পী এবং তার পরিবারের পক্ষে এত টাকা সংগ্রহ করা সম্ভব নয়। এরই মধ্যে দেশের শীর্ষস্থানীয় ইলেকট্রিক্যাল, ইলেকট্রনিকস, অটোমোবাইলস, হোম অ্যাপ্লায়েন্স ও টেলিকমিউনিকেশন পণ্য প্রস্তুতকারী প্রতিষ্ঠান ওয়ালটন গ্রুপের পক্ষ থেকে অসুস্থ শিল্পী আব্দুল জব্বারের হাতে অর্থ সহায়তার চেক তুলে দেওয়া হয়েছে।

স্বাধীনতা যুদ্ধের সময় আব্দুল জব্বার হারমোনিয়াম নিয়ে কলকাতার বিভিন্ন ক্যাম্পে গিয়ে গান গেয়ে মুক্তিযোদ্ধাদের উদ্বুদ্ধ করেন। সেই দুঃসময়ে স্বাধীন বাংলা বেতার কেন্দ্রে গেয়েছেন অসংখ্য গান। স্বাধীন বাংলা বেতার কেন্দ্র থেকে এই শিল্পীর গাওয়া বিভিন্ন গান মুক্তিযোদ্ধাদের প্রেরণা ও মনোবল বাড়িয়েছে। শুধু তাই নয়, ভারতের বিভিন্ন স্থানে গণসংগীত গেয়ে প্রাপ্ত ১২ লাখ টাকা তিনি স্বাধীন বাংলাদেশ সরকারের ত্রাণ তহবিলে দান করেছিলেন। ১৯৭১ সালে তিনি মুম্বাইয়ে ভারতের প্রখ্যাত কণ্ঠশিল্পী হেমন্ত মুখোপাধ্যায়কে সঙ্গে নিয়ে বাংলাদেশের স্বাধীনতার জন্য জনমত তৈরিতেও নিরলসভাবে কাজ করেন।


দৈনিক সময় সংবাদ ২৪ ডট কম সংবাদের কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি,আলোকচত্রি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে র্পূব অনুমতি ছাড়া ব্যবহার করা সর্ম্পূণ বেআইনি। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে যে কোন কমেন্সের জন্য কর্তৃপক্ষ দায়ী নয়।