| | রবিবার, ৪ঠা কার্তিক, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ, ২০শে সফর, ১৪৪১ হিজরী |

ইরানের প্রেসিডেন্ট রুহানির ভাইয়ের ৫ বছরের কারাদণ্ড

প্রকাশিতঃ ৪:৫১ অপরাহ্ণ | অক্টোবর ০১, ২০১৯

অনলাইন ডেস্ক :ইরানের প্রেসিডেন্ট হাসান রুহানির ভাইকে দেশটির একটি আদালত পাঁচ বছরের কারাদণ্ড দিয়েছেন। মঙ্গলবার দেশটির বিচার বিভাগের একজন মুখপাত্রের বরাত দিয়ে ইরানের আধা-সরকারি বার্তাসংস্থা ফারস নিউজ অ্যাজেন্সি এ তথ্য জানিয়েছে।চলতি বছরের মে মাসে দেশটির একটি আদালত রুহানির ভাই হোসেইন ফেরেদোনকে দুর্নীতির মামলায় অনির্ধারিত মেয়াদে কারাদণ্ড দেন। প্রেসিডেন্ট রুহানির সমর্থকরা তার ভাইয়ের বিরুদ্ধে আদালতের এই কারাদণ্ডাদেশকে রাজনৈতিক উদ্দেশ্যপ্রণোদিত বলে দাবি করেন।

বিচারবিভাগের মুখপাত্র গোলাম হোসেইন এসমাইলি বলেছেন, ফেরেদোনকে পাঁচ বছরের কারাদণ্ড দেয়া হয়েছে। তিনি অন্য একটি মামলায় অভিযুক্ত হতে পারেন। তবে এ ব্যাপারে বিস্তারিত কোনো তথ্য দেননি এই কর্মকর্তা।

পুলিশের ৯ ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাকে বদলি

প্রেসিডেন্ট রুহানির বিশ্বস্ত উপদেষ্টা ছিলেন ফেরেদোন; যিনি ২০১৫ সালে ইরানের সঙ্গে ওয়াশিংটন ও অন্য চার বিশ্ব শক্তির পারমাণবিক চুক্তি স্বাক্ষরে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করেন।

গত বছরের ফেব্রুয়ারিতে ফেরেদোন-সহ আরো ছয়জনের বিরুদ্ধে দেশটির আদালতে বিচার শুরু হয়। তবে কোন ধরনের অভিযোগের ভিত্তিতে প্রেসিডেন্টের এই ভাইকে বিচারের কাঠগড়ায় তোলা হয় সেব্যাপারে বিস্তারিত তথ্য কখনই প্রকাশ করেনি বিচারবিভাগ।

তবে দীর্ঘদিনের পুরোনো একটি দুর্নীতির মামলার ঘটনায় ২০১৭ সালে তাকে প্রথমবারের মতো আটক করা হয়। সেই সময় বিচার বিভাগ জানান, তার বিরুদ্ধে বহুমুখী অভিযোগের তদন্ত হবে। ফেরেদোনের বিরুদ্ধে আর্থিক অনিয়মের অভিযোগও আনা হয়েছিল।

স্থানীয় গণমাধ্যমের খবরে সেই সময় বলা হয়, গ্রেফতারের একদিন পর প্রেসিডেন্টের এই ভাইকে কয়েক মিলিয়ন ডলারের বিনিময়ে জামিনে মুক্তি দেন আদালত। ফেরেদোনকে এক সময় প্রেসিডেন্ট রুহানির ‘চোখ এবং কান’ হিসেবে মনে করা হতো। তবে দেশটির রক্ষণশীল কিছু রাজনৈতিক নেতার চক্ষুশূল হয়েছিলেন তিনি।

সূত্র : রয়টার্স, দ্য ন্যাশনাল।

Matched Content

দৈনিক সময় সংবাদ ২৪ ডট কম সংবাদের কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি,আলোকচত্রি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে র্পূব অনুমতি ছাড়া ব্যবহার করা সর্ম্পূণ বেআইনি। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে যে কোন কমেন্সের জন্য কর্তৃপক্ষ দায়ী নয়।


Shares