| | সোমবার, ৮ই আশ্বিন, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ, ২৪শে মুহাররম, ১৪৪১ হিজরী |

পাইকারিতে ৪৮, খুচরায় ৫৫ টাকা ছাড়ায়নি দেশি পেঁয়াজ

প্রকাশিতঃ ৪:৪৮ অপরাহ্ণ | সেপ্টেম্বর ০৩, ২০১৯

স্টাফ রিপোর্টার : হঠাৎ অস্বাভাবিক দাম বেড়ে রাজধানীতে দেশি পেঁয়াজের কেজি ৭০ টাকা বিক্রি হচ্ছে এমন গুঞ্জন ছড়ালেও তা সত্য নয় বলে দাবি করছেন ব্যবসায়ীরা। ব্যবসায়ীদের দাবি এক মাসের মধ্যে খুচরা পর্যায়ে দেশি পেঁয়াজের কেজি ৫৫ টাকার ওপরে বিক্রি হয়নি। আর পাইকারিতে দেশি পেঁয়াজ বিক্রি হয়েছে সর্বোচ্চ ৪৮ টাকা কেজি।

মঙ্গলবার রাজধানীর কারওয়ান বাজার, রামপুরা, মালিবাগ, খিলগাঁও ও বাড্ডা অঞ্চলের বিভিন্ন বাজারের ব্যবসায়ীদের সঙ্গে কথা বলে এমন তথ্য পাওয়া গেছে। পেঁয়াজ পাইকারি অথবা খুচরা বিক্রি করেন এমন অন্তত ৫০ জন ব্যবসায়ীর সঙ্গে কথা হয়েছে এ প্রতিবেদকের। এর মধ্যে কাঁচবাজারের ব্যবসায়ীরা যেমন রয়েছেন, তেমনি মুদি দোকানদারও রয়েছেন।

পেঁয়াজের দামের বিষয়ে কারওয়ান বাজারের ব্যবসায়ী মো. জামাল বলেন, বর্তমানে সব থেকে ভালো মানের দেশি পেঁয়াজ বিক্রি হচ্ছে ৪৮ টাকা কেজি। এর থেকে নিম্ন মানের পেঁয়াজ বিক্রি হচ্ছে ৪৪-৪৬ টাকা কেজি। ১৫-২০ দিন ধরে এই দামেই দেশি পেঁয়াজ বিক্রি হচ্ছে।

এই ব্যবসায়ী বলেন, সম্প্রতি দেশি পেঁয়াজের দাম বাড়েনি, আবার কমেনি। দাম যা ছিল তাই আছে। হঠাৎ দেশি পেঁয়াজের দাম বাড়ার তথ্য সঠিক না। তবে আমদানি করা পেঁয়াজের দাম বেড়েছে। বর্তমানে আমাদানি করা পেঁয়াজের কেজি বিক্রি হচ্ছে ৪০ থেকে ৪২ টাকা, যা এক সপ্তাহ আগে ছিল ৩০-৩২ টাকা কেজি।

রামপুরার ব্যবসায়ী মিলন বলেন, কয়েকদিন আগে পত্রিকায় দেখলাম দেশি পেঁয়াজের কেজি ৭০ টাকা বিক্রি হচ্ছে। এটা দেখে তো অবাক হয়েছিলাম। ভেবেছিলাম আমি কম দামে পেঁয়াজ বিক্রি করে ফেলেছি। এরপর পাইকারিতে খোঁজ নিয়ে দেখি পেঁয়াজের যে দাম ছিল, সেই দামই আছে। আমি গত দুই সপ্তাহ ধরে দেশি পেঁয়াজের কেজি ৫০ টাকা বিক্রি করছি।

খিলগাঁওয়ের ব্যবসায়ী খায়রুল মিয়া বলেন, আমদানি করা ভারতীয় পেঁয়াজের দাম বেড়েছে এটা সত্য। সপ্তাহের ব্যবধানে ভারতীয় পেঁয়াজের দাম কেজিতে বেড়েছে প্রায় ১০ টাকা। তবে দেশি পেঁয়াজের দাম বাড়েনি। দেশি পেঁয়াজ আগের দামেই বিক্রি হচ্ছে। আমদানি করা পেঁয়াজের দাম বাড়ায় এখন ভারতীয় পেঁয়াজ ও দেশি পেঁয়াজের দাম প্রায় একই।

মালিবাগের ব্যবসায়ী সুমন বলেন, পেঁয়াজের দাম বাড়ার খবর আমরা শুনেছি। কিন্তু এর কোনো সত্যতা পাইনি। আমরা গত ১৫-২০ দিন ধরে একই দামে দেশি পেঁয়াজ বিক্রি করছি। সব থেকে ভালোটার কেজি ৫৫ টাকা, এর থেকে একটু নিম্ন মানের পেঁয়াজ ৫০ টাকা কেজি বিক্রি করছি।

এই ব্যবসায়ী বলেন, দেশি পেঁয়াজের দাম এখন না বাড়লেও সামনে বাড়তে পারে। কারণ ভারতীয় পেঁয়াজের দাম বেড়ে গেছে। গত ১০ দিনে ভারতীয় পেঁয়াজের দাম কেজিতে ১০ টাকা বেড়েছে। এমন দাম বাড়ার কারণে ভারতীয় পেঁয়াজের প্রতি ক্রেতাদের আগ্রহ কমেছে। বিপরীতে দেশি পেঁয়াজের চাহিদা বেড়েছে। তাই আমাদের ধারণা ভারতীয় পেঁয়াজের দাম না কমলে দেশি পেঁয়াজের দাম বেড়ে যেতে পারে।

বাড্ডার ব্যবসায়ী আফজাল বলেন, আমরা দুই সপ্তাহ আগেও ভালোমানের দেশি পেঁয়াজ ৫৫ টাকা কেজি বিক্রি করেছি। এখনো ৫৫ টাকা কেজি বিক্রি করছি। একদিনের জন্যও আমরা দেশি পেঁয়াজের কেজি ৫৫ টাকা ওপরে বিক্রি করিনি।

রামপুরার মুদি দোকানদার শিপলু বলেন, দেশি পেঁয়াজের দাম বেড়েছে এমন সংবাদ আমরা শুনেছি। তবে আমরা দাম বাড়াইনি। আগেও ৫০ টাকা কেজি বিক্রি করেছি। এখনো ৫০ টাকা কেজি বিক্রি করছি। নতুন পেঁয়াজ আনার সময় যদি মোকামে দাম বেশি রাখে, তখন আমরা দাম বাড়িয়ে দেব। তার আগে দাম বাড়ানোর প্রশ্নই আসে না।

প্রধানমন্ত্রীর অপেক্ষায় পুলিশের কমিউনিটি ব্যাংক

Matched Content

দৈনিক সময় সংবাদ ২৪ ডট কম সংবাদের কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি,আলোকচত্রি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে র্পূব অনুমতি ছাড়া ব্যবহার করা সর্ম্পূণ বেআইনি। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে যে কোন কমেন্সের জন্য কর্তৃপক্ষ দায়ী নয়।


Shares