| | শুক্রবার, ৩০শে কার্তিক, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ, ১৮ই রবিউল-আউয়াল, ১৪৪১ হিজরী |

সিজারের সময় নবজাতকের মাথা কেটে ফেললেন চিকিৎসক

প্রকাশিতঃ ৬:৪২ অপরাহ্ণ | জুলাই ১২, ২০১৯

অনলাইন ডেস্ক :যশোর কিংস হাসপাতালে এক প্রসূতির সিজার করার সময় নবজাতকের মাথা কেটে ফেলেছেন ডা. আতিকুর রহমান নামে এক চিকিৎসক। ঘটনার দুইদিন পর নবজাতক শিশুটির অবস্থা আশঙ্কাজনক হওয়ায় তাকে যশোর আড়াইশ শয্যা হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। শিশুটির বাবা যশোর সদরের সতীঘাটা পান্থাপাড়া গ্রামের বাসিন্দা ইকরাম হোসেন।

ইকরাম হোসেন জানান, তার গর্ভবতী স্ত্রী নাজনীন নাহার বুধবার সন্ধ্যায় ভর্তি হন ডা. আতিকুর রহমানের মালিকানাধীন কিংস হাসপাতালে। ভর্তির পরপরই কোনো রকম পরীক্ষা-নিরীক্ষা ছাড়াই ডা. আতিকুর রহমান তার স্ত্রীর অপারেশন করেন। অপারেশন করার সময় গর্ভে থাকা শিশুটির মাথায় অপারেশন কাজে ব্যবহৃত অস্ত্রের পোচ লাগে। এতে মাথার মাঝখানে গভীর ক্ষতের সৃষ্টি হয়। এ সময় স্বজনরা শিশুটির মাথায় রক্ত দেখে একটু উত্তেজিত হয়ে উঠলে ডা. আতিকুর রহমান তাদের ধমক দিয়ে বলেন, ‘এটা কিছু না, সামান্য ব্যাপার।’

গৌরীপুরে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে শ্রদ্ধা নিবেদন করলেন ছাত্রলীগের নতুন কমিটির নেতৃবৃন্দ

ইকরাম হোসেন আরও জানান, ওই অবস্থায় দু’দিন তারা শিশুটিকে হাসপাতালে রেখে দেন। শিশুর অবস্থার অবনতি হওয়ায় শুক্রবার সকাল ১০টায় তাকে যশোর আড়াইশ শয্যা হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।যশোর আড়াইশ শয্যা হাসপাতালের জরুরি বিভাগের চিকিৎসক কাজল মল্লিক বলেন, শিশুটির মাথা কাটা রয়েছে। তবে কি কারণে কাটা রয়েছে, তা জানি না।

এ ব্যাপারে অভিযুক্ত ডা. আতিকুর রহমান বলেন, এটা তেমন কোনো বড় ঘটনা না। এটা অপারেশনের সময় হতেই পারে।

প্রসঙ্গত, ডা. আতিকুর রহমান গাইনি বিশেষজ্ঞ নন। তিনি ছিলেন যশোর আড়াইশ শয্যা হাসপাতালের একজন মেডিকেল অফিসার।

Matched Content

দৈনিক সময় সংবাদ ২৪ ডট কম সংবাদের কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি,আলোকচত্রি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে র্পূব অনুমতি ছাড়া ব্যবহার করা সর্ম্পূণ বেআইনি। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে যে কোন কমেন্সের জন্য কর্তৃপক্ষ দায়ী নয়।


Shares