| |

গৌরীপুরে বিয়ের দাওয়াত না পেয়ে ক্ষোভে বাড়ি-ঘরে হামলা-ভংচুর

প্রকাশিতঃ 1:56 pm | June 09, 2019

কমল সরকার,গৌরীপুর (ময়মনসিংহ) প্রতিনিধি : ভতিজির বিয়ের দাওয়াত না পেয়ে ক্ষোভে আপন ভাই আব্দুল খালেকের (৪৫) বাড়িতে হামলা চালিয়ে ভাংচুর-লুটপাটের অভিযোগ ওঠেছে স্থানীয় ঈসরাফিল (৫৫) ও তার সহযোগীদের বিরুদ্ধে। বিয়ের অনুষ্ঠান শেষে শুক্রবার (৭ জুন) রাত ৮ টার দিকে ময়মনসিংহের গৌরীপুর উপজেলার দুর্গম চরাঞ্চল ভাংনামারী ইউনিয়নের চর ভাবখালী গ্রামে এ হামলার ঘটনাটি ঘটেছে। হামলায় ৪ জন আহত হয়েছেন। আহতরা হলেন- আব্দুল খালেকের ছেলে সুমন মিয়া (১৭), ভাতিজা আব্দুর রশিদ (২৫), আব্দুর রাশিদ (১৮) ও মোতালিব (২৪)। উক্ত হামলার ঘটনায় ওইদিন রাতেই মৃত খোরশেদ আলীর ছেলে আব্দুল খালেক গৌরীপুর থানায় একটি লিখিত অভিযোগ করেছেন।

আব্দুল খালেক জানান, বড় ভাই ঈসরাফিলের সঙ্গে জমি সংক্রান্ত ও অন্যান্য বিষয় নিয়ে তার দীর্ঘদিন ধরে বিরোধ চলে আসছিল। এর জের ধরে প্রায় ১ মাস পূর্বে ভাবী (্ঈসরাফিলের স্ত্রী) তার স্ত্রী মাথায় রক্তাক্ত জখমও করেছিল। ঘটনার পর থেকে দুই পরিবারের মাঝে কথাবার্তা বন্ধ ছিল। তাই মেয়ের বিয়েতে আপন ভাই ঈসরাফিলকে দাওয়াত দেননি আব্দুল খালেক।

ইমিগ্রেশন পুলিশের এসআই বরখাস্ত

এই ক্ষোভে শুক্রবার মেয়ের বিয়ের অনুষ্ঠান শেষে রাত ৮ টার দিকে ঈসরাফিলের নেতৃত্বে ৪০ জন দেশীয় অস্ত্র নিয়ে আব্দুল খালেক ও তার অপর ২ ভাই নজু মিয়া (৫৬), তোতা মিয়ার (৬০) বাড়ি ঘরে হামলা চালিয়ে ভাংচুর-লুটপাট করে। এসময় বাঁধা দেয়ায় আব্দুল খালেকের ছেলে সুমন মিয়া (১৭), ভাতিজা আব্দুর রশিদ (২৫), আব্দুর রাশিদ (১৮) ও মোতালিব (২৪) কে আহত করা হয়।

এ ঘটনায় ঈসরাফিলের মন্তব্য জানতে তার বাড়িতে গেলে তাকে পাওয়া যায়নি। গৌরীপুর থানার এস আই বাহারুল ইসলাম বলেন, অভিযোগ পেয়ে পরদিন ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন তিনি। তদন্ত কার্যক্রম শেষে এ ঘটনায় আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে বলে জানান তিনি।


দৈনিক সময় সংবাদ ২৪ ডট কম সংবাদের কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি,আলোকচত্রি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে র্পূব অনুমতি ছাড়া ব্যবহার করা সর্ম্পূণ বেআইনি। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে যে কোন কমেন্সের জন্য কর্তৃপক্ষ দায়ী নয়।


Shares