| | শনিবার, ২২শে অগ্রহায়ণ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ, ১০ই রবিউস-সানি, ১৪৪১ হিজরী |

ধর্ষণ চিত্র ফেসবুকে প্রচার পটিয়ায় ধর্ষক আরিফ গ্রেপ্তার

প্রকাশিতঃ ৯:১৫ অপরাহ্ণ | মে ০৩, ২০১৯

পটিয়া (চট্টগ্রাম) থেকে সেলিম চৌধুরী : ধর্ষণের পর ধর্ষণের চিত্র ভিডিও করে ফেসবুকে ছেড়ে দেওয়ার অভিযোগে পুলিশ ধর্ষক আরিফ (৩০) কে গ্রেপ্তার করেছে। সে পটিয়া উপজেলার শোভনদন্ডী গ্রামের আজিজুর রহমানের পুত্র। চট্টগ্রামের পটিয়া পৌরসভার মুন্সেফ বাজার মহিউদ্দিন বিল্ডিং এর আবাসিক এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। গতকাল (শুক্রবার) এ ব্যাপারে পটিয়া থানায় আরিফের বিরুদ্ধে দুইটি মামলা দায়ের করা হয়েছে।

জানা যায়, রাঙ্গুনিয়া উপজেলার সরফ ভাটা এলাকার  জনৈক ব্যক্তি পটিয়া পৌরসভার মুন্সেফ বাজার এলাকায় ভাড়া বাসায় থাকত। তার সাথে তার স্ত্রীও থাকতেন। নাজিম উদ্দিন একটি প্রাইভেট কোম্পানীতে চাকুরী করতেন। সে সুবাদে ধর্ষক আরিফের সাথে নাজিমের যোগাযোগ ছিল। নাজিমের বাসায় আরিফ প্রায় সময় যাওয়া আসা করত। এর মধ্যে নাজিমের স্ত্রীর সাথে আরিফের অবৈধ পরকীয়া সম্পর্ক গড়ে উঠে। এ সুযোগে প্রায় সময় আরিফ নাজিমের স্ত্রীকে মুন্সেফ বাজার মহিউদ্দিন বিল্ডিং এর ভাড়াটিয়া বাসায় ধর্ষন করতেন।

কোটচাঁদপুরে চিহ্নিত সন্ত্রাসীর গুলিবিদ্ধ লাশ উদ্ধার

কিছুদিন আগে নাজিম সহ তার স্ত্রী তাদের রাঙ্গুনিয়া নিজ বাড়ী এলাকায় চলে যায়। এদিকে ধর্ষণের ভিডিও তার মোবাইলে রেকর্ড করে রাখত। গত কয়েকদিন আগে নাজিমের স্ত্রীকে আরিফ ফোনে জানায় তোমার ভিডিও চিত্র আমার কাছে আছে। তুমি পটিয়া এসে আমার সাথে যোগাযোগ না করলে তা প্রচার করে দেব। কিন্তু নাজিমের স্ত্রী না আসায় ধর্ষণের ভিডিও চিত্র ফেসবুকে প্রচার করে দেয় আরিফ। এরপর বিষয়টি জানাজানি হলে নাজিম তার স্ত্রীকে নিয়ে পটিয়া থানায় গত ২ মে পটিয়া থানার ওসি বোরহান উদ্দিনকে জানালে তিনি আরিফকে তার শোভনদন্ডী গ্রামের নিজ বাড়ী থেকে গ্রেপ্তার করে।

এ ব্যাপারে পটিয়া থানার ওসি বোরহান উদ্দিন জানান আরিফকে গ্রেপ্তারের পর গতকাল (শুক্রবার) পটিয়া থানায় একটি নারী নির্যাতন ও অপরটি ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে আরিফের বিরুদ্ধে পৃথক দুইটি মামলা দায়ের করা হয়েছে এবং আরিফকে জেল হাজতে প্রেরণ করা হয়েছে।

Matched Content

দৈনিক সময় সংবাদ ২৪ ডট কম সংবাদের কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি,আলোকচত্রি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে র্পূব অনুমতি ছাড়া ব্যবহার করা সর্ম্পূণ বেআইনি। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে যে কোন কমেন্সের জন্য কর্তৃপক্ষ দায়ী নয়।


Shares