| | বৃহস্পতিবার, ৭ই ভাদ্র, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ, ২০শে জিলহজ্জ, ১৪৪০ হিজরী |

পটিয়া কাউন্সিলর শফির বিরুদ্ধে ৬০ লক্ষ টাকা চেক প্রতারনা আদালতে ৩ মামলা

প্রকাশিতঃ ১০:০৭ অপরাহ্ণ | এপ্রিল ২০, ২০১৯

পটিয়া (চট্টগ্রাম) প্রতিনিধি : চট্টগ্রামে পটিয়া পৌরসভা ৬ নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর মো: শফিউল আলম কর্তৃক ব্যবসায়ী মো: তৌহিদুল আলমের কাছ থেকে ৬০ লক্ষ টাকার চেক প্রতারনা পূর্বক আতœসাত করার পায়তারার অভেযোগে চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে পৃথক তিন টি মামলা দায় হয়েছে।

এ মামলার বাদী ব্যবসায়ী মো: তৌহিদুল ইসলাম। সি আর মামলা নং ২০২০/২০২১/২০২২/১৭ইং মামলার এজাহার সূত্রে জানা যায় ২০১৭ সালে ১১ জুলাই মো: শফিউল আলম ঐশি এন্টারপ্রাইজ নামে ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে প্রয়োজনে আখিঁ এন্টারপ্রাইজ এর মালিক মো: তৌহিদুল ইসলামের কাছ থেকে ৬০ লক্ষ টাকা ধার নেন। এর বিনিময়ে শফি চট্টগ্রাম ন্যাশনাল ব্যাংক লিঃ জুবলি রোড শাখার অনুকুলে তিনটি ৬০ লক্ষ টাকার পৃথক চেক প্রদান করে ছিলেন। কিন্তু শফিউল আলম ধার নেওয়া টাকা ফেরত না দিয়ে বিভিন্ন তালবাহনা শুরু করেন। প্রথম চেকে ৩৫ লক্ষ ২য় চেকে ১৫ লক্ষ এবং ৩য় চেকে ১০ লক্ষ টাকা চেক প্রদান করে।

শার্শার স্কুলছাত্রী নিপা’র কৃত্রিম পা লাগাতে নেয়া হবে বিদেশে

ব্যবসায়ী মো: তৌহিদুল আলম তার সমুদয় টাকা না পাওয়া একই বছরে ১৭ জুলাই চেক তিনটি ডিজউনার করেন। ১৩ আগষ্ট ২০১৭ ইং লিগ্যাল নোটিশ প্রদান করে। এতে শফি বিষয়টি কর্ণপাত না করায় এবং পৃথক তিনটি চেকে ৬০ লক্ষ টাকার আতœসাতের কু-মানসে লিপ্ত থাকায় ব্যবসায়ী তৌহিদুল আলম বাদী হয়ে ১০/১০/১৭ ইং পটিয়া পৌর ৬ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর মো: শফিউল আলমের বিরুদ্ধে পৃথক তিনটি চেক প্রতারনা মামলা দায় করেন বলে মামলার এজাহার সূত্রে প্রকাশ।

শতভাগ দুর্নীতিমুক্ত হলে ফেরেশতা হয়ে যেতাম

বর্তমানে এ তিন মামলা আদালতে বিচারধীন রয়েছে। এ ব্যাপারে শফিউল আলম জানান আমি অর্ধেক টাকা দিয়ে ফেলেছি আর বাকি টাকা এই মাসের মধ্যে দিয়ে ফেলবে বলে জানান। ব্যবাসায়ী তৌহিদুল আলম জানান আমার প্রাপ্য টাকা এখনো পাইনি আদালতে মামলা করেছি বর্তমানে মামলা বিচারধীন রয়েছে বলে জানান।

Matched Content

দৈনিক সময় সংবাদ ২৪ ডট কম সংবাদের কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি,আলোকচত্রি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে র্পূব অনুমতি ছাড়া ব্যবহার করা সর্ম্পূণ বেআইনি। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে যে কোন কমেন্সের জন্য কর্তৃপক্ষ দায়ী নয়।


Shares