| | সোমবার, ৪ঠা ভাদ্র, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ, ১৮ই জিলহজ্জ, ১৪৪০ হিজরী |

খুলনায় আসামিপক্ষের আবেদনের প্রেক্ষিতে হত্যা মামলার নির্ধারিত দিনে সাক্ষ্য গ্রহণ হয়নি

প্রকাশিতঃ ৪:৪৫ অপরাহ্ণ | এপ্রিল ১৬, ২০১৯

আতিয়ার রহমান,খুলনা অফিস : যুবলীগের কেন্দ্রীয় ভাইস চেয়ারম্যান ও কেসিসি’র সাবেক কাউন্সিলর শহীদ ইকবাল বিথার হত্যা মামলার নির্ধারিত দিনে সাক্ষ্য গ্রহণ হয়নি। আসামিপক্ষের আবেদন আমলে নিয়ে চলতি বছরের ১৫ সেপ্টেম্বর এ মামলার পরবর্তী দিন নির্ধারণ করেছে আদালত। দীর্ঘ প্রায় ১০ বছরের মাথায় গত ২১ মার্চ চার্জ গঠনের পর গত সোমবার সাক্ষ্য গ্রহণের জন্য দিন নির্ধারিত ছিল। মামলার বাদী এস এম রফিউর রহমান আদালতে হাজির হলেও সাক্ষ্য দিতে পারেননি।

আদালতের বেঞ্চ সহকারী মোঃ বাহাউদ্দিন শাহীন জানান, গত সোমবার আসামিপক্ষ এ মামলার চার্জ গঠনের আদেশের বিরুদ্ধে উচ্চ আদালতে রিভিউশন মামলা দায়ের করবেন বলে ল’ইয়ার সার্টিফিকেট দাখিল করেছেন। এবং সাক্ষ্য গ্রহণের জন্য সময় প্রার্থনাও করেছেন। আদালতের বিচারক অতিরিক্ত মহানগর দায়রা জজ মোছাঃ রোজিনা আক্তার আসামিপক্ষের আবেদন আমলে নিয়েছেন। পাশাপাশি আগামী ১৫ সেপ্টেম্বর উচ্চ আদালতের আদেশ দাখিলের জন্য দিন নির্ধারণ করেছেন।

মামলায় অভিযুক্তরা হলেন, মহানগর যুবলীগের আহ্বায়ক আনিসুর রহমান পপলু, জীবন ওরফে শবে কাদির, লিয়াকত আলী শিকদার, মনিরুজ্জামান মাসুদ ওরফে তোতা মাসুদ, একরাম হোসেন ওরফে সিয়াম ওরফে আকাশ এবং সুমন হোসেন ওরফে রাজু। ২০০৯ সালের ১১ জুলাই রাতে নগরীর মুসলমানপাড়ার মেট্রোপলিটন ক্লিনিকের সামনে দুর্বৃত্তদের গুলিতে নিহত হন শহীদ ইকবাল বিথার।

এ ঘটনায় তার শ্যালক মোঃ রফিউদ্দিন বাদী হয়ে অজ্ঞাত পরিচয় ব্যক্তিদের আসামি করে ১২ জুলাই খুলনা থানায় হত্যা মামলা দায়ের করেন। চাঞ্চল্যকর এ হত্যা মামলাটি প্রথমে খুলনা থানা পুলিশ এরপর নগর গোয়েন্দা পুলিশ (ডিবি) তদন্ত করে। এক পর্যায়ে মামলাটি ২০১০ সালে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মনিটরিং সেলের পর্যবেক্ষণ সেলে যায়।

হত্যাকান্ডের ৪ বছর ৩ মাস পর ২০১৩ সালের ১০ অক্টোবর খুলনা মহানগর গোয়েন্দা পুলিশের (ডিবি) পরিদর্শক মোঃ নাফিউর রহমান আদালতে চার্জশীট দাখিল করেন। ২৭ অক্টোবর আদালত মামলাটি অধিকতর তদন্তের জন্য সিআইডিকে নির্দেশ দেন।

সিআইডির সম্পূরক চার্জশীটে খুলনা মহানগর যুবলীগের আহ্বায়ক এড. সরদার আনিসুর রহমান পপলু, ইকরাম হোসেন ওরফে সিয়াম ওরফে আকাশ, সুমন হোসেন রাজু, ইমামুল কবীর জীবন ওরফে শবে কাদির, লিয়াকত আলি শিকদার, মোঃ মনিরুজ্জামান মাসুদ ওরফে তোতা মাসুদকে অভিযুক্ত করা হয়।

Matched Content

দৈনিক সময় সংবাদ ২৪ ডট কম সংবাদের কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি,আলোকচত্রি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে র্পূব অনুমতি ছাড়া ব্যবহার করা সর্ম্পূণ বেআইনি। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে যে কোন কমেন্সের জন্য কর্তৃপক্ষ দায়ী নয়।


Shares