| | শুক্রবার, ৪ঠা শ্রাবণ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ, ১৫ই জিলক্বদ, ১৪৪০ হিজরী |

পটিয়ায় কমছে আবাদি কৃষি জমির পরিমাণ দিশেহারা কৃষক

প্রকাশিতঃ ১০:২৯ অপরাহ্ণ | এপ্রিল ০২, ২০১৯

পটিয়া (চট্টগ্রাম) থেকে সেলিম চৌধুরী : চট্টগ্রামের পটিয়ায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশ অমান্য করে একশ্রেণীর সরকার দলীয় কতিপয় নেতাকর্মী সিন্ডিকেট করে আবাদি কৃষি জমির উর্বর অংশ কেটে জমজমাট ভাবে ব্যবসা চালিয়ে গেলেও স্থানীয় জনপ্রতিনিধি ও প্রশাসন রহস্য জনক নিবর ভূমিকা পালন করছে।

এতে করে দিশেহারা হয়ে পড়েছে গরিব অসহায় কৃষকরা। পটিয়া উপজেলার প্রত্যন্ত অঞ্চলে কমবেশি বর্তমানে কৃষি জমির টপসয়েল কাটার মহোৎসব চলছে। বিশেষ করে পটিয়ার হাইদগাঁও, সাতগাছিয়া, কাজির বিলে আবু খান, মালেক ড্রাইভার, দক্ষিণ হাইদগাঁও, টিটু মেম্বারের এলাকায় সেলিম, কেলিশহর ইউনিয়নে নাগাড়া বিলে এমরান, আকবর, ইকবাল, কেলিশহর পাহাড়ে পাদদেশে, কচুয়াই, বড়লিয়া, লড়িহরা, জঙ্গলখাইন, ধলঘাট এর প্রভা ষ্টোর, ভাটিখাইন, ছনহরা, শোভনদন্ডী, খরণা, মুরাদাবাদ, কোলাগাঁও, জিরি, মালিয়ারা, পাঁচুরিয়া, আশিয়া, কুসুমপুরা, দক্ষিণ ভূর্ষি ইউনিয়নে একটি বিশাল সিন্ডিকেট, আবাদি কৃষি জমির টপসয়েল কাটার অভিযোগ উঠেছে। এনিয়ে স্থানীয় পত্রিকায় সংবাদ প্রকাশিত হলেও সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ আইনগত প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা না নেওয়ায় এলাকার লোকজনের মধ্যে চরমক্ষোভ দেখা দিয়েছে। পটিয়ার এমপি হুইপ আলহাজ্ব সামশুল হক চৌধুরী ও গণপ্রজাতন্ত্রী সরকারের মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশও অমান্য করছে।

মাটি কাটার সিন্ডিকেটরা স্কেভেটর দিয়ে কৃষি জমি ও পাহাড় কাটায় পরিবেশের জীব-বৈচিত্র মারাত্মক হুমকির সম্মুখীন হচ্ছে। যার ফলে মানুষের মধ্যে বিভিন্ন রোগ ব্যাধি ছড়াচ্ছে বলে অভিযোগ তোলেন স্থানীয় কৃষক আবদুর রহিম, মোঃ জাফর, সিরাজসহ আরো অনেকে। যার ফলে একদিকে কৃষি জমি কমছে অপরদিকে বাড়ীঘর বাড়ছে। ফলে দেশের খাদ্য শষ্য উৎপাদনে নানান সমস্যার সম্মুখিন হতে হচ্ছে। ভবিষ্যৎ প্রজন্ম এনিয়ে উদ্বিগ্ন। এব্যাপারে দিশেহারা কৃষকদের রক্ষা করার জন্য প্রয়োজনীয় আইনগত ব্যবস্থা নেওয়ার দাবি জানিয়েছেন এলাকাবাসী উর্দ্ধতন পুলিশ প্রশাসনের কাছে।

Matched Content

দৈনিক সময় সংবাদ ২৪ ডট কম সংবাদের কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি,আলোকচত্রি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে র্পূব অনুমতি ছাড়া ব্যবহার করা সর্ম্পূণ বেআইনি। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে যে কোন কমেন্সের জন্য কর্তৃপক্ষ দায়ী নয়।


Shares