| | বুধবার, ৩রা আশ্বিন, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ, ১৯শে মুহাররম, ১৪৪১ হিজরী |

একদিনে হাজারের বেশি মামলা নিষ্পত্তি, হাইকোর্ট বেঞ্চে রেকর্ড

প্রকাশিতঃ ৯:৫২ অপরাহ্ণ | মার্চ ১৯, ২০১৯

স্টাফ রিপোর্টার : মামলার বিচারিক কাজ শেষ করে নিষ্পত্তির ক্ষেত্রে রেকর্ড করলেন হাইকোর্টের দুই বিচারপতি। তারা হলেন- বিচারপতি এম. ইনায়েতুর রহীম ও বিচারপতি মো. মোস্তাফিজুর রহমান।

গত বৃহস্পতিবার ১৪ মার্চ এক দিনেই তাদের দ্বৈত বেঞ্চ এক হাজার ১২টি মামলার বিচারিক কাজ শেষ করেছেন।

সংশ্লিষ্ট আদালতের ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল ফরহাদ আহমেদ জানান, এটা নজিরবিহীন। একজন বিচারকের মধ্যে ডেডিকেশন থাকলেই কেবল এমন নজির স্থাপন করা সম্ভব।

তিনি বলেন, আদালত প্রতিটি মামলা শুনেছেন ও আদেশ দিয়েছেন। এই সাফল্য উচ্চ আদালতে বিরাজমান মামলার জট নিরসনে বিরাট ভূমিকা রাখবে।

এর আগের সপ্তাহে একই বেঞ্চ এক দিনে ৬৯২টি মামলা নিষ্পত্তি করেছিলেন। হাইকোর্ট বিভাগের ওই দিনের ৫৬টি বেঞ্চের বিচারকাজ পর্যালোচনা করে এই তথ্য পাওয়া গেছে। এ ছাড়া সুপ্রিম কোর্টের ওয়েবসাইটেও এই তথ্য রয়েছে।

প্রাপ্ত তথ্যানুযায়ী, হাইকোর্টের বিচারপতি এম. ইনায়েতুর রহীম ও মো. মোস্তাফিজুর রহমানের বেঞ্চে মামলা ছিল এক হাজার ১৬টি। এর মধ্যে এক হাজার ১২টি মামলা নিষ্পত্তি করেছেন এই আদালত।

এর আগে দেশের মামলার জট নিরসনের লক্ষ্যে প্রধান বিচারপতি সৈয়দ মাহমুদ হোসেন পুরনো মামলা অগ্রাধিকার ভিত্তিতে নিষ্পত্তির উদ্যোগ নেন। এরই অংশ হিসেবে হাইকোর্টের বিভিন্ন বেঞ্চকে পুরনো মামলা বিচারের জন্য দায়িত্ব দেন। বিশেষ করে ফৌজদারি কার্যবিধির ৪৯৮ ধারায় জামিন আবেদন করে জামিন নেয়ার পর হাজার হাজার রুল বছরের পর বছর বিচারাধীন থাকায় তা নিষ্পত্তির জন্য ১৪টি হাইকোর্ট বেঞ্চকে দায়িত্ব দেন।

এসব বেঞ্চকে প্রতি বৃহস্পতিবার ৪৯৮ ধারায় জামিনসংক্রান্ত ২০১৪ সালের ফৌজদারি বিবিধ মামলা নিষ্পত্তির নির্দেশ দেয়া হয়।

ওই নির্দেশের পর গত দুই মাস ধরে সংশ্লিষ্ট ১৪টি হাইকোর্ট বেঞ্চে ৪৯৮ ধারায় সৃষ্ট ফৌজদারি বিবিধ মামলা নিষ্পত্তি করা হচ্ছে। এই ধারাবাহিকতার অংশ হিসেবে হাইকোর্টের বিচারপতি এম. ইনায়েতুর রহীম ও বিচারপতি মোস্তাফিজুর রহমানের বেঞ্চে গত ৭ মার্চ ৬৯২টি বিবিধ মামলা তালিকাভুক্ত হয়।

২০১৪ সালে সৃষ্ট এসব মামলায় ওই দিন শুনানি হয়। এত বিপুলসংখ্যক মামলা শুনানি শেষে সব মামলাই নিষ্পত্তি করে আদেশ দেন। এরই ধারাবাহিকতায় বৃহস্পতিবার মামলা নিষ্পত্তিতে আবারও ইতিহাস গড়লেন এই হাইকোর্ট বেঞ্চ।

Matched Content

দৈনিক সময় সংবাদ ২৪ ডট কম সংবাদের কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি,আলোকচত্রি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে র্পূব অনুমতি ছাড়া ব্যবহার করা সর্ম্পূণ বেআইনি। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে যে কোন কমেন্সের জন্য কর্তৃপক্ষ দায়ী নয়।


Shares