| |

দুই বছর ধরে হামলার পরিকল্পনা করে ব্রেন্টন

প্রকাশিতঃ 8:39 pm | March 15, 2019

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : নিউজিল্যান্ডে হামলার পরিকল্পনা দুই বছরে ধরে করে আসছিলেন সন্দেহভাজন আটক ব্রেন্টন ট্যারেন্ট। এতো সময় ধরে করা ওই পরিকল্পনায় তার প্রাথমিক লক্ষ্যবস্তু ডানেডিনের কোনো মসজিদ হলেও মাত্র তিন মাস আগে হঠাৎ পরিল্পনায় পরিবর্তন আনেন ট্যারেন্ট। শেষ পর্যন্ত শুক্রবার (১৫ মার্চ) ক্রাইস্টচার্চের দু’টি মসজিদে হামলা চালান তিনি।

হামলা পরবর্তী এ বিষয়ে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে পুলিশ কমিশনার মাইক বুশ বলেন, হামলা ছিলো খুবই পরিকল্পিত।

ঘটনাস্থলে আসার জন্য হামলাকারীর ব্যবহৃত গাড়ি থেকে দু’টি অত্যাধুনিক বিস্ফোরক উদ্ধার করা হয়েছে। এর মধ্যে একটি নিষ্ক্রিয় করা হয়েছে, অন্যটি নিষ্ক্রিয়ের প্রক্রিয়ায় রয়েছে বলে জানান বুশ।

এছাড়া অকল্যান্ডে দু’টি সন্দেহভাজন বস্তু উদ্ধার করার পর সেগুলো ধ্বংস করা হয়েছে। তবে ক্রাইস্টচার্চের ঘটনার সঙ্গে এগুলোর কোনো সম্পর্ক নেই বলেও জানান পুলিশ কমিশনার।

শরীর চর্চায় নিবেদিত ২৮ বছর বয়সী ব্রেন্টন ২০০৯ সালের পর থেকে ব্যক্তিগত প্রশিক্ষক হিসেবে কাজ করতেন।

এদিকে হামলার ঘণ্টা কয়েক আগে নিজের ফেসবুক পোস্টে ৭৩ পৃষ্ঠার ম্যানিফোস্টো প্রকাশ করেন ওই হামলাকারী। ওইসব ম্যানিফেস্টোতে তিনি তার ক্ষোভ, হামলার কারণসহ ২০১১ সালে নরওয়েতে ‘গণহত্যাকারী’ আন্দ্রেস বেহেরিংয়ের হামলার ঘটনায় অনুপ্রাণিত হওয়ার কথা তুলে ধরেন। নরওয়েতে ওই হামলায় অন্তত ৭৭ জনের প্রাণহানি হয়েছিলো।

এছাড়া ২০১৭ সালের ৭ এপ্রিল সুইডেনের স্টকহোমের একটি সন্ত্রাসী হামলার ঘটনা তার মধ্যে পরিবর্তন তৈরি করে বলেও ম্যানিফেস্টোতে উল্লেখ করেন ব্রেন্টন।

হামলার ঘটনায় জড়িত সন্দেহে পুলিশ ব্রেন্টন ছাড়াও এক নারীসহ আরো তিনজনকে হেফাজতে নিয়েছে।

শুক্রবার জুমার নামাজ আদায়ের সময় ক্রাইস্টচার্চের দু’টি মসজিদে সন্ত্রাসী হামলায় শেষ খবর পর্যন্ত ৪৯ জনের মৃত্যু ও ৪৯ জন আহত হয়েছেন। আহতদের অনেকের অবস্থা আশঙ্কাজনক।


দৈনিক সময় সংবাদ ২৪ ডট কম সংবাদের কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি,আলোকচত্রি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে র্পূব অনুমতি ছাড়া ব্যবহার করা সর্ম্পূণ বেআইনি। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে যে কোন কমেন্সের জন্য কর্তৃপক্ষ দায়ী নয়।


Shares