| | মঙ্গলবার, ২রা আশ্বিন, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ, ১৭ই মুহাররম, ১৪৪১ হিজরী |

পাসপোর্ট দেয়া হবে রাত ১০টা পর্যন্ত

প্রকাশিতঃ ৮:৫২ অপরাহ্ণ | মার্চ ১০, ২০১৯

স্টাফ রিপোর্টার : ২০১৯ সালের হজযাত্রীদের পাসপোর্ট সেবা দিতে রাত ১০টা পর্যন্ত খোলা থাকবে বাংলাদেশ ইমিগ্রেশন ও পাসপোর্ট অধিদফতরের আগারগাঁওয়ের প্রধান কার্যালয়।

রবিবার বিষয়টি নিশ্চিত করেন বাংলাদেশ ইমিগ্রেশন ও পাসপোর্ট অধিদফতরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক (পাসপোর্ট, ভিসা ও ইমিগ্রেশন) সেলিনা বানু।

হজযাত্রীদের সবাই পাসপোর্ট না পাওয়া পর্যন্ত চলবে তাদের এই কার্যক্রম। ২০১৯ সালের হজ নিবন্ধন কার্যক্রম চলবে ১২ মার্চ পর্যন্ত।

সেলিনা বানু বলেন, একজন হজযাত্রীও যাতে পাসপোর্ট ছাড়া ফিরে না যান এ কারণে আমরা আজ রাত ১০টা পর্যন্ত পাসপোর্ট অধিদফতরের কার্যক্রম পরিচালনার সিদ্ধান্ত নিয়েছি। পাসপোর্ট সংগ্রহের লাইনে সর্বশেষ ব্যক্তিটি থাকা পর্যন্ত দাফতরিক কাজ চলবে। কেউই পাসপোর্ট ছাড়া ফিরে যাবেন না।

হজযাত্রীরা যথাসময়ে পাসপোর্ট না পেলে তাদের নিবন্ধন বিলম্বিত এবং হজযাত্রা অনিশ্চিত হয়ে পড়তে পারে। গত ৬ মার্চ হজযাত্রীদের জরুরি ভিত্তিতে পাসপোর্ট সরবরাহের নির্দেশের জন্য পাসপোর্ট অধিদফতরের মহাপরিচালককে অনুরোধ করে চিঠি দেয় ধর্ম মন্ত্রণালয়।

চিঠিতে বলা হয়, ইতোমধ্যে কিছু কিছু হজযাত্রী অভিযোগ করছেন, পাসপোর্টের জন্য আবেদন করে যথাসময়ে তারা পাসপোর্ট পাচ্ছেন না। তাদের পাসপোর্ট সংগ্রহের জন্য সাধারণ পাসপোর্ট আবদেনকারীদের মতো সময় দেয়া হচ্ছে।

হজ প্রাক-নিবন্ধন সনদ নিয়ে কোনো হজযাত্রী পাসপোর্টের জন্য আবেদন করলে তাকে জরুরি ভিত্তিতে পাসপোর্ট সরবরাহের জন্য সব জেলা ও আঞ্চলিক পাসপোর্ট অফিসকে প্রয়োজনীয় নির্দেশনা প্রদানে বিশেষভাবে অনুরোধ জানানো হয়।

চলতি বছর (২০১৯) সরকারি ও বেসরকারি ব্যবস্থাপনায় এক লাখ ২৭ হাজার ১৯৮ জন পবিত্র হজ পালন করবেন। তাদের মধ্যে সরকারিভাবে সাত হাজার ১৯৮ ও বেসরকারি ব্যবস্থাপনায় এক লাখ ২০ হাজার বাংলাদেশি হজযাত্রী হজ পালন করতে যাবেন।

সরকারি ব্যবস্থাপনায় হজ নিবন্ধন কার্যক্রম গত ১৪ ফেব্রুয়ারি শুরু হয়। প্রথম দফায় ৫ মার্চ পর্যন্ত সময়সীমা বেঁধে দেয়া হলেও নিবন্ধন কার্যক্রম শেষ না হওয়ায় ১২ মার্চ পর্যন্ত সময় বাড়ানো হয়েছে।

Matched Content

দৈনিক সময় সংবাদ ২৪ ডট কম সংবাদের কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি,আলোকচত্রি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে র্পূব অনুমতি ছাড়া ব্যবহার করা সর্ম্পূণ বেআইনি। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে যে কোন কমেন্সের জন্য কর্তৃপক্ষ দায়ী নয়।


Shares