| | শনিবার, ২২শে অগ্রহায়ণ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ, ১০ই রবিউস-সানি, ১৪৪১ হিজরী |

হয়রানির অভিযোগে চমেক হাসপাতালে ৩৫০ জনকে অব্যাহতি

প্রকাশিতঃ ১১:৪৩ অপরাহ্ণ | মার্চ ০৭, ২০১৯

পটিয়া (চট্টগ্রাম) থেকে সেলিম চৌধুরী : চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ (চমেক) হাসপাতালের ৩৫০ জন স্পেশাল বা অবৈতনিক আয়া ও ওয়ার্ডবয়কে কাজ থেকে অব্যাহতি দিয়েছে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ। গত ৬মার্চ বুধবার সকালে নোটিশের মাধ্যমে তাদের অব্যাহতির বিষয়টি জানানো হয়।

এসব অবৈতনিক বা স্পেশাল আয়া ও ওয়ার্ডবয়ের বিরুদ্ধে বিভিন্ন সময় রোগী ও স্বজনদের সেবার নামে অর্থ আদায়সহ নানা ধরণের হয়রানির একাধিক অভিযোগ ছিল। এছাড়া হাসপাতালের চিকিৎসা নিতে আসা রোগী ও স্বজনদের কাছে সুযোগ বুঝে টাকা হাতিয়ে নেয়ার অভিযোগও ছিল তাদের বিরুদ্ধে। শুধু তাই নয়, টাকা দিতে না চাইলে সেবার নামে পদেপদে হয়রনির করতো রোগীদের। এসব বিষয়ে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের কাছে একাধিক অভিযোগও ছিল। এসব অবৈতনিক বা স্পেশাল আয়া ও ওয়ার্ডবয়কে কোন পারিশ্রমিক দিত না হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ। মূলত রোগীদের কাছ থেকে সম্মানী হিসেবে যা পেত তা দিয়েই তাদের জীবিকা চলতো। তবে সন্মানীর এ সুযোগকে কাজে লাগিয়ে অর্থ হাতিয়ের নেয়ার মতো কাজ করতো তারা।

হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ জানায়, এক হাজার ৩’শ ১৩ শয্যার বিপরীতে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ (চমেক) হাসপাতালে নিয়োগ প্রাপ্ত কর্মচারী (৪র্থ শ্রেণী) ছিল মাত্র ৩শ ৫১জন। কিন্তু হাসপাতালে প্রতিদিন চিকিৎসা সেবা নিতে আসেন কমপক্ষে ৩/৪ হাজার রোগী। সেই তুলনায় জনবল সংকট থাকায় এতদিন হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ তাদের বিরুদ্ধে কোন ব্যবস্থা নেয়নি। তবে বর্তমানে সরকারি এবং বেসরকারি (চুক্তিভিত্তিক) ও আনসারসহ ২৮৩জন নতুন জনবল নেয়ার পর তাদের অব্যাহতি দেয়ার বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেয় হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ। তাই গত ৬মার্চ বুধবার নোটিশ দিয়ে ৩৫০ অবৈতনিক বা স্পেশাল আয়া ও ওয়ার্ডবয়দের কাজে যোগ দিতে নিষেধ করেন হাসপাতাল প্রাশাসন।

হাসপাতালের কাগজ অনুযায়ী এসব কর্মচারীর সংখ্যা ৩৫০ জন হলেও বাস্তবে এ সংখ্যা ৬ শতাধিকেরও বেশি। অব্যাহতি দেয়ার বিষয়টি নিশ্চিত করে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ (চমেক) হাসপাতালের উপ-পরিচালক ডা. আখতারুল ইসলাম সাংবাদিকদের বলেন, এসব কর্মচারীর বিরুদ্ধে রোগী হয়রানিসহ একাধিক অভিযোগ ছিল, তাই তাদের কাজে যোগ দিতে নিষেধ করা হয়েছে। এ জন্য একটি নোটিশও প্রত্যেক ওয়ার্ডে দেয়া হয়েছে। তাছাড়া এতদিন আমাদের জনবল ছিল না। এখন যেহেতু নতুন করে কিছু সরকারি ও বেসরকারি জনবল নিয়োগ দেয়া হয়েছে। এবং নতুন করে আরও কিছু জনবল নিয়োগ দেয়া হবে। তাই তাদের অব্যাহতি দেয়া হয়েছে।

Matched Content

দৈনিক সময় সংবাদ ২৪ ডট কম সংবাদের কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি,আলোকচত্রি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে র্পূব অনুমতি ছাড়া ব্যবহার করা সর্ম্পূণ বেআইনি। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে যে কোন কমেন্সের জন্য কর্তৃপক্ষ দায়ী নয়।


Shares