| |

সন্ন্যাসীনীদের যৌনদাসী হিসেবে ব্যবহার করছেন পাদ্রীরা : পোপ

প্রকাশিতঃ 10:13 pm | February 06, 2019

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : খ্রিস্টান ধর্মের রোমান ক্যাথলিক শাখার প্রধান ধর্মগুরু পোপ ফ্রান্সিস স্বীকার করেছেন যে, সন্ন্যাসীনীদের যৌন নির্যাতন করছেন খ্রিস্টান পাদ্রীরা। একটি ঘটনায় সন্ন্যাসীনীদের যৌন দাসী হিসেবেও রাখছেন তারা।

তিনি বলেছেন, ওই ঘটনায় তার পূর্বসূরী পোপ বেনেডিক্ট সন্ন্যাসীনীদের পুরো একটি সম্প্রদায়কে সরিয়ে দিতে বাধ্য হন; যারা ধর্মযাজকের কাছে নিপীড়নের শিকার হয়েছিলেন। যাজকদের কাছে সন্ন্যাসীনীদের যৌন নিপীড়নের ঘটনার ব্যাপারে এবারই প্রথম পোপ ফ্রান্সিস স্বীকার করলেন।

পোপ ফ্রান্সিস বলেছেন, ‘চার্চের পক্ষ থেকে এই সমস্যা সমাধানে চেষ্টা করা হয়েছিল। তবে তিনি বলেন, এটা এখনো ঘটছে।’ মধ্যপ্রাচ্যে ঐতিহাসিক সফরের দিন মঙ্গলবার সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে তিনি এসব কথা বলেন।

ভ্যাটিকান প্রেস অফিসের কর্মকর্তা অ্যালেসান্দ্রো গিসোট্টি সিবিএস নিউজকে বলেন, পোপ ফ্রান্সিস এসব বলেছেন ফ্রান্সের একটি চার্চের ঘটনার আলোকে।

পোপ স্বীকার করেন, ধর্মযাজক এবং বিশপরা সন্ন্যাসীনীদের নিপীড়ন করছেন। তবে চার্চ এ ব্যাপারে অবগত আছে এবং বিষয়টি নিয়ে কাজ করছে। এটা একটি পথ, যে পথে আমরা চলছি।

তিনি বলেন, ‘পোপ বেনেডিক্টের সেই সাহস ছিল, তিনি একটা পর্যায়ে গিয়ে পুরো একটি সন্ন্যাসীনী সমাজকে সরিয়ে দিয়েছিলেন। কারণ নারীদের দাসত্ব এমন জায়গায় প্রবেশ করেছিল যা দাসত্বই। এমনকি সেটা যৌন দাসত্ব। আর এটা হয়েছিল যাজক অথবা চার্চের প্রতিষ্ঠাতাদের পক্ষ থেকে।’

রোমান ক্যাথলিক শাখার প্রধান এই ধর্মগুরু বলেন, ‘সন্ন্যাসীনীদের যৌন নিপীড়নের ঘটনা একটি চলমান সমস্যা। মূলত নতুনদের ক্ষেত্রে এবং নির্দিষ্ট কিছু জায়গায় এসব ঘটছে।’

গত নভেম্বরে ক্যাথলিক চার্চের সন্ন্যাসীনীদের বৈশ্বিক একটি সংগঠনের নীরবতা ও গোপনীয়তার নিন্দা জানানো হয়। সংগঠনটি যৌন নিপীড়নের ব্যাপারে সন্ন্যাসীনীদের কথা বলায় বাধা দিয়ে থাকে। বিবিসি।


দৈনিক সময় সংবাদ ২৪ ডট কম সংবাদের কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি,আলোকচত্রি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে র্পূব অনুমতি ছাড়া ব্যবহার করা সর্ম্পূণ বেআইনি। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে যে কোন কমেন্সের জন্য কর্তৃপক্ষ দায়ী নয়।


Shares
error: Content is protected !!