| |

অন্তঃসত্ত্বা সেই কিশোরীকে বিয়ে করে ঘরে তুলে নিল সোহেল

প্রকাশিতঃ 12:16 pm | January 13, 2019

কমল সরকার,গৌরীপুর (ময়মনসিংহ) প্রতিনিধি : ময়মনসিংহের গৌরীপুরে ৭ মাসের অন্তঃসত্ত্বা সেই কিশোরী সাবিনাকে (১৫) বিয়ে করলেন ধর্ষক যুবক সোহেল মিয়া (৩০)। শুক্রবার (১১ জানুয়ারী) রাতে গৌরীপুর থানায় ১০ লক্ষ টাকা দেন মোহর ধার্য করে রেজিস্ট্রি কাবিনমূলে উভয় পক্ষের পরিবারের সম্মতিতে তাদের বিয়ে সম্পন্ন হয়।

উল্লেখ্য এ উপজেলার হাটশিরা গ্রামের ইউসূফ আলীর ছেলে সোহেল মিয়া গত রোজার মাসে মৃত মজিবুর রহমানের মেয়ে সাবিনাকে জোরপূর্বক ধর্ষণ করে। এতে সাবিনা ৭ মাসের অন্তঃসত্ত্বা হয়ে পড়ে। এ ঘটনায় কয়েকবার দেন-দরবার করা হলেও সোহেলের পরিবার ওই কিশোরীকে ঘরে তুলে নিতে রাজি হননি। আগত সন্তানের পিতৃপরিচয়ের স্বীকৃতির জন্য সাবিনা মানুষের দ্বারে দ্বারে ঘুরছিল বলে স্থানীয়রা জানান।

এদিকে কিশোরী অন্তঃসত্ত্বার হওয়ার ঘটনাটি বিভিন্ন গণমাধ্যমে প্রকাশিত হলে গৌরীপুর থানার অফিসার ইনচার্জ আব্দুল্লাহ আল মামুনের নজরে আসে। পরে শুক্রবার রাতে ধর্ষক যুবক সোহেলকে আটক করে থানায় এনে মামলার প্রস্তুতি নিচ্ছিলেন আব্দুল্লাহ আল মামুন। এসময় ধর্ষণের কথা স্বীকার করে সোহেল ওই কিশোরীকে বিয়ে করার প্রস্তাব দেন। এতে ধর্ষক ও ধর্ষিত কিশোরী পরিবার রাজি হয়ে আব্দুল্লাহ আল মামুনকে বিয়ে সম্পন্ন করার অনুরোধ করেন।

অবশেষে উভয় পক্ষের সম্মতিতে থানায় কাজী ডেকে এনে ১০ লক্ষ টাকার দেন মোহর ধার্য করে রেজিস্ট্রি কাবিনমূলে তাদের বিয়ে সম্পন্ন করা হয়েছে। গৌরীপুর থানার অফিসার ইনচার্জ আব্দুল্লাহ আল মামুন এ বিষয়ে সাংবাদিকদের নিশ্চিত করেছেন।

এমন প্রশংসনীয় উদ্যোগের জন্য স্থানীয় লোকজন গৌরীপুর থানার অফিসার ইনচার্জ আব্দুল্লাহ আল মামুনকে আন্তরিক অভিনন্দন ও সাধুবাদ জানিয়েছেন।


দৈনিক সময় সংবাদ ২৪ ডট কম সংবাদের কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি,আলোকচত্রি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে র্পূব অনুমতি ছাড়া ব্যবহার করা সর্ম্পূণ বেআইনি। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে যে কোন কমেন্সের জন্য কর্তৃপক্ষ দায়ী নয়।


Shares
error: Content is protected !!