| |

পটিয়ায় উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে পুরানদের সঙ্গে লড়বেন নতুন নারী প্রার্থীরা

প্রকাশিতঃ 12:24 am | January 10, 2019

পটিয়া (চট্টগ্রাম) থেকে সেলিম চৌধুরী : উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে এবার পুরানদের সঙ্গে লড়বেন নতুন দুই নারী। পটিয়া উপজেলা পরিষদের সাবেক ভাইস চেয়ারম্যান মাজেদা বেগম শিরু, বর্তমান পরিষদের মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান বিএনপির নেত্রী আফরোজা বেগম জলি, পটিয়া উপজেলা মহিলা আ’লীগের সাধারণ সম্পাদক ও কচুয়ায় ইউপির সংরক্ষিত মহিলা সদস্য সাজেদ বেগম, যুব মহিলা লীগ নেত্রী শাহানা আকতার টিয়া ও ধলঘাট ইউনিয়ন পরিষদের মহিলা মেম্বার ও উপজেলা যুব মহিলা লীগের সাধারণ সম্পাদিকা সুমি দে সাথী। সুমি ও টিয়া দুই জনেই নতুন।

তারা আগামী নির্বাচনে মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে নির্বাচন করতে চান। কিছুদিন ধরে উপজেলা পরিষদের সাবেক ভাইস চেয়ারম্যান মাজেদা বেগম শিরুর সঙ্গে টিয়া ও সুমির মধ্যে বিরোধ চলে আসছিল।

এখানে বিএনপির একক প্রার্থীর নাম পাওয়া গেলেও সরকারি দল আওয়ামী লীগের একাধিক সম্ভাব্য মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান প্রার্থীর নাম মিলছে। তাদের মধ্যে কেউ কাউকে ছাড় দিতে রাজি নন। মূলত নির্বাচন কমিশনার আগামী মার্চ মাসে উপজেলা পরিষদের নির্বাচন ও ফেব্রুয়ারীর মধ্যে তফসিল ঘোষনার ইঙ্গিত দেওয়ায় সম্ভাব্য মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান প্রার্থীরা নির্বাচন করার কথা ভাবছে। তারা যার যার অবস্থান থেকে লবিং শুরু করে দিয়েছেন।

বিভিন্ন সূত্রে জানা গেছে, একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে পটিয়ায় মহিলা আওয়ামী লীগ ও যুব মহিলা লীগ নৌকার প্রার্থী সামশুল হক চৌধুরীর বিজয়ের ক্ষেত্রে ভুমিকা রাখেন। তবে কিছুদিন ধরে পটিয়াতে নারীদের নেতৃত্ব নিয়ে চলছে দ্বন্দ্ব। যা উপজেলা নির্বাচনের আগে প্রকাশ্যে হতে চলেছে। দ্বন্দ্বের জের ধরে আগামী উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে আওয়ামী লীগের একাধিক প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বীতা করার বিষয়টি জানিয়েছেন।

সিপিবি মতাদর্শের নারী নেত্রী ও সাবেক ভাইস চেয়ারম্যান মাজেদা বেগম শিরু বিগত সময়ে উপজেলা পরিষদের দায়িত্ব সুনামের সঙ্গে পালন করেছেন। এবার তিনি আওয়ামী লীগের ব্যানারে মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে পুনরায় নির্বাচন করতে চান। তবে শিরুর পথের কাঁটা হতে পারে যুব মহিলা লীগের টিয়া ও সুমি। তারা দুইজনেই পটিয়া থেকে নির্বাচন করার জন্য আগাম বার্তা মিডিয়ার কাছে তুলে ধরছেন।

সাবেক মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান ও নারী নেত্রী মাজেদা বেগম শিরু বলেন, বিগত উপজেলা পরিষদে তিনি সততা ও সুনামের সঙ্গে দায়িত্ব পালন করেছেন। উপজেলার মানুষ তাকে ভালো ভাবেই জানেন। আগামী উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে নির্বাচন করতে আগাম প্রস্তুত নিয়েছেন। তাছাড়া সম্প্রতি অনুষ্ঠিত একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে নৌকার পক্ষে উপজেলার প্রতিটি এলাকায় কাজ করেছেন।

তবে যুব মহিলা লীগের পটিয়া উপজেলার সাধারণ সম্পাদিকা ও ধলঘাট ইউনিয়ন পরিষদের মহিলা মেম্বার সুমি দে সাথী জানান, আওয়ামী লীগের ব্যানারে তিনি মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে নির্বাচন করবেন। সুমি নারী সংগঠনে নেতৃত্ব দেওয়ার কারণে উপজেলার প্রতিটি ইউনিয়নে তার রয়েছে সক্রিয় নারী সদস্য। মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে নির্বাচন করলে তিনি বিজয়ী হবেন।
যুব মহিলা লীগের নেত্রী শাহানা আকতার টিয়া জানান, আওয়ামী লীগের ব্যানারে থেকে আগামী উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে নির্বাচন করবেন।

একটি পক্ষ আওয়ামী লীগের মহিলাদের মধ্যে বিভাজন সৃষ্টি করে রেখেছে। গ্রহণ যোগ্যতা ও নতুন নেতৃত্ব সৃষ্টি করতে তিনি আগামী উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে প্রতিদ্বন্দ্বীতা করতে চান।

উল্লেখ্য, মহিলা ছাড়াও আগামী উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে পটিয়া থেকে উপজেলা পরিষদের বর্তমান চেয়ারম্যান ও বিএনপি নেতা অধ্যাপক মোজাফফর আহমদ চৌধুরী টিপু, দক্ষিণ জেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি মোতাহেরুল ইসলাম চৌধুরী, দক্ষিণ জেলা আওয়ামী লীগের স্বাস্থ্য বিষয়ক সম্পাদক ডাঃ তিমির বরণ চৌধুরী, দক্ষিণ জেলা আওয়ামী লীগের কার্য নির্বাহী কমিটির সদস্য ও সাবেক চেয়ারম্যান নাছির আহমদ, ভাইস চেয়ারম্যান পদে উপজেলা পরিষদের বর্তমান ভাইস চেয়ারম্যান ছৈয়দ এয়ার মুহাম্মদ পেয়ারু, দক্ষিণ জেলা যুবলীগের সদস্য ও বাংলাদেশ মানবাধিকার পটিয়া উপজেলার সভাপতি আবু ছালেহ মো. শাহরিয়ার, উপজেলা আওয়ামী লীগ নেতা মিজানুর রহমান, উপজেলা আ’লীগের প্রচার সম্পাদক গোলাম সরোয়ার চৌধুরী মুরাদ, পটিয়া উপজেলা যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক এম,এ রহিম, উপজেলা পূজা উদযাপন পরিষদের সভাপতি ঋষি বিশ্বাস,উপজেলা আওয়ামী লীগ নেতা আশিষ তালুকদার ও ইনসানিয়াত বিপ্লবের নেতা মোরশেদুল আলম খোরশেদের নাম শুনা যাচ্ছে।


দৈনিক সময় সংবাদ ২৪ ডট কম সংবাদের কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি,আলোকচত্রি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে র্পূব অনুমতি ছাড়া ব্যবহার করা সর্ম্পূণ বেআইনি। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে যে কোন কমেন্সের জন্য কর্তৃপক্ষ দায়ী নয়।


Shares