| | শনিবার, ৩রা কার্তিক, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ, ২০শে সফর, ১৪৪১ হিজরী |

জমি বিক্রির টাকার জন্য শিশু জুয়েলকে হত্যা

প্রকাশিতঃ ৯:১৪ অপরাহ্ণ | নভেম্বর ২৪, ২০১৮

নাহিদ হোসেন নাটোর প্রতিনিধি : সিংড়া উপজেলার কুমগ্রামের মুক্তার সরকার প্রায় সাড়ে ৩ লাখ টাকার জমি বিক্রি করেন। ভাইয়ের কাছ থেকে সেই টাকা হাতিয়ে নেওয়ার জন্যই আট বছরের ভাতিজা জুয়েল কে শ্বাসরোধ করে হত্যা করে আপন চাচা মনি এবং মামা হিরা।
শনিবার দুপুরে নাটোরের পুলিশ সুপারের কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে সিংড়ার চাঞ্চল্যকর শিশু জুয়েল হত্যার রহস্য উদঘাটন হয়েছে দাবী করে এসব তথ্য জানান অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আকরামুল হোসেন। এসময় অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন সদর সার্কেলের সহকারী পুলিশ সুপার ফয়জুর রহমান, জেলা গোয়েন্দা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা সৈকত হাসান, মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা সহ নাটোরে কর্মরত সাংবাদিকরা।

প্রেস ব্রিফিংয়ে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আকরামুল হোসেন বলেন, নিহত জুয়েল আহমেদ এর পিতা সিংড়া উপজেলার কুমগ্রামের মুক্তার সরকার প্রায় সাড়ে ৩ লাখ টাকার জমি বিক্রি করেন। ভাইয়ের কাছ থেকে সেই টাকা হাতানোর জন্য গত ২৬ অক্টোবর আপন ভাতিজা জুয়েলকে অপহরণ করেন চাচা মনি সরকার। সাথে ছিলেন জুয়েলের মামা হিরা। তারা জুয়েলকে অপহরণ করে নিয়ে যাওয়ার সময় শ্বাস বন্ধ হয়ে মারা যায় সে। পরে লাশটি গ্রামের একটি ডোবায় কচুরিপানা দিয়ে চাপা দিয়ে রাখে। দু’দিন পর রাতে পুলিশ লাশটি উদ্ধার করে। এ ঘটনায় দ্বীজেন নামে একজনকে আটক করার পর বেড়িয়ে আসে এসব তথ্য। আটক সবাই হত্যার ঘটনা স্বীকার করেছে প্রেস ব্রিফিংয়ে জানানো হয়।

উল্লেখ্য, গত ২৬ অক্টোবর বিকেলে বাড়ীর পাশে খেলা করার সময় নিখোঁজ হয় জুয়েল আহমেদ। এরপর ২৮ অক্টোবর রাতে জুয়েলের বাড়ীর অদুরে একটি ডোবার কচুরীপানার নিচ থেকে তার মৃতদেহ উদ্ধার করে পুলিশ। এঘটনায় নিহতের বাবা মুক্তার সরকার অজ্ঞাতদের আসামী করে সিংড়া থানায় একটি মামলা দায়ের করেন। মামলা দায়েরের পর পুলিশ তদন্ত শুরু করলে ঘটনার সাথে জড়িত সন্দেহে দ্বিজেন নামে এক যুবককে আটক করে পুলিশ। পরে তার দেওয়া তথ্যমতে হত্যাকান্ডের সাথে জড়িত নিহতের চাচা মনি সরকার ও মামা হিরা সরকারকে শুক্রবার রাতে গ্রেফতার করে।

Matched Content

দৈনিক সময় সংবাদ ২৪ ডট কম সংবাদের কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি,আলোকচত্রি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে র্পূব অনুমতি ছাড়া ব্যবহার করা সর্ম্পূণ বেআইনি। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে যে কোন কমেন্সের জন্য কর্তৃপক্ষ দায়ী নয়।


Shares