| |

ময়মনসিংহ-১ আসনে তৃণমূলে আস্থার প্রতীক বিএনপি’র রুবেল

প্রকাশিতঃ 8:33 pm | November 24, 2018

জোটন চন্দ্র ঘোষ,হালুয়াঘাট : বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দলের তৃণমূলের আস্থার প্রতীক আসন্ন একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে ময়মনসিং-১ (হালুয়াঘাট-ধোবাউড়া) আসনে ধানের শীষ প্রতীকের মনোনয়ন প্রত্যাশী উপজেলা বিএনপির যুগ্ন আহ্বায়ক,খালেদা জিয়া মুক্তি পরিষদের কেন্দ্রীয় কমিটির সহ-সভাপতি ও ওমর ফাউন্ডেশনের ব্যবস্থাপনা পরিচালক আলহাজ্ব সালমান ওমর রুবেল। তিনি দীর্ঘদিন যাবত আসনটিতে সাধারণ জনগণ ও তৃণমূলের কর্মী সমর্থকদের নিয়ে সাংগঠনিক কার্যক্রমসহ সমাজের অসহায় দূস্থ মানুষের মূখে হাসি ফুটিয়েছেন।

ধারা ইউনিয়ন পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান মোহাম্মদ হাকিম খাঁন বলেন, বিভিন্ন উন্নয়ন মূলক কর্মকান্ডে সার্বিক ভাবে অংশ গ্রহন করায় তৃণমূলে আস্থার প্রতীক হিসেবে পরিচিতি লাভ করেন সালমান ওমর রুবেল। উভয় উপজেলায় কর্মী সমর্থকদের নিয়ে দীর্ঘ ২২ বছর যাবত হারানো আসনটি পুনউদ্বার করতে বিরতিহীন ভাবে গণসংযোগ চালিয়েছেন। ক্লিন ইমেজ থাকার কারণে রয়েছে ব্যাপক জনপ্রিয়তা। উপজেলার বিএনপি সমর্থক ও সাধারণ ভোটারদের মাঝে বইছে আলোচনার ঝড়। প্রতিনিয়তই বৃদ্ধি পাচ্ছে তার জনপ্রিয়তা ও সমর্থক গোষ্টী। সাধারণ জনগণ ও কর্মী সমর্থকদের দাবী-দলীয় কোন্দল এর উর্ধ্বে দলমত নির্বিশেষে রয়েছে ব্যক্তি সালমান ওমর রুবেলের বিশাল ভোট ব্যাংক। সকল মহলের নিকট রয়েছে গ্রহণযোগ্যতা। উপজেলায় এই নেতার কোন বিকল্প নেই। নিজ অবস্থান থেকে রাজনৈতিক ও সামাজিক ভাবে প্রতিষ্ঠিত। পেশায় একজন সফল ব্যবসায়ী,তাই তাকে মূল্যয়িত করতে সাবেক প্রধানমন্ত্রী দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়া ও তারূণ্যের অহংকার বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক জিয়ার দৃষ্টি আকর্ষণ করছেন হালুয়াঘাট ও ধোবাউড়া উপজেলার তৃণমূলের বিএনপি কর্মী-সমর্থকরা। উপজেলার প্রতিটি ওয়ার্ড ও ইউনিয়ন বিএনপিতে রুবেলের রয়েছে শক্ত অবস্থান।

উপজেলা বিএনপির সদস্য হিসাম বাক্কার ও বীর মুক্তিযোদ্ধা কারী মোহাম্মদ আবুল কাসেম বলেন, অত্র উপজেলায় বিএনপি সমর্থীত ভোট বেশী থাকলেও দলীয় কোন্দলের কারণে ১৯৯৬ সনের পর থেকে এই আসনটিতে বিএনপি জয়লাভ করতে পাড়েনি। উভয় উপজেলায় চক্ষুক্যাম্পের মাধ্যমে বিনামুল্যে ছানী অপারেশন, চশমা বিতরণ, শারীরিক প্রতিবন্ধীদের মাঝে হুইল চেয়ার,শীতার্থদের কম্বল বিতরণ। বন্যায় ক্ষতিগ্রস্থ বন্যার্তদের মাঝে ত্রান সামগ্রী বিতরণসহ বিভিন্ন উন্নয়ন মূলক কর্মকান্ড করে এলাকায় ব্যাপক পরিচিতি লাভ করেছেন। তৃণমূল নেতা-কর্মীদের নতুন করে উজ্জীবিত করে প্রতিটি ওয়ার্ড ও ইউনিয়নে পথ সভা,উঠান বৈঠকসহ প্রত্যন্ত গ্রামাঞ্চলে ভোটারদের সাথে মতবিনিময় করে প্রচার প্রচারনায় এগিয়ে রয়েছেন। কেন্দ্রীয় নেতাদের সমন্ময়ে খালেদা জিয়ার মুক্তির জন্য গঠন করেছেন ”খালেদা জিয়া মুক্তি পরিষদ”। সম্প্রতি আগামী দিনের রাষ্ট্র প্রধান তারেক রহমানকে নিয়ে ”বাংলাদেশ নিয়ে তারেক রহমানের স্বপ্ন”একটি বইয়ের মোড়ক উন্মোচন করেন। আসনটি পূনউদ্বার করতে বিভক্ত বিএনপিকে ঐক্যবদ্ধ করার জন্য জোর চেষ্টা চালিয়েছেন।

আসনটিতে ১টি পৌরসভা ও ১৯টি ইউনিয়নে ৩ লাখ ৭৭ হাজার ৩২০ জন ভোটার রয়েছে। হালুয়াঘাটে ২ লাখ ৩৩ হাজার ১৪০ ও ধোবাউড়াতে ১ লাখ ৪৪ হাজার ১৮০ জন ভোটার।

আলহাজ্ব সালমান ওমর রুবেল একান্ত সাক্ষাত কারে যায়যায়দিনকে জানান,গণতন্ত্রের আপসহীন নেত্রী সাবেক প্রধানমন্ত্রী দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়াকে মুক্ত ও গণতন্ত্র পূন উদ্বার করার জন্য একাদশ সংসদ নির্বাচনে ধানের শীষ প্রতীককে ভোট দিয়ে জয়যুক্ত করতে হবে। তরুণ প্রজন্মের রাজনৈতিক ব্যক্তি হিসেবে দল তাকেই মনোনয়ন দিবেন। অসহায় দরিদ্র লক্ষাধিক মানুষকে তিনি সহযোগিতা করেছেন। তৃণমূলে দলীয় নেতা–কর্মীদের উজ্জীবিত করতে কাজ করে যাচ্ছেন। তাকে মনোনয়ন দেওয়া হলে দেশনেত্রী খালেদা জিয়া ও তারুণ্যের অহংকার তারেক রহমানকে এই আসন উপহার দেওয়া হবে বলে জানান।


দৈনিক সময় সংবাদ ২৪ ডট কম সংবাদের কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি,আলোকচত্রি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে র্পূব অনুমতি ছাড়া ব্যবহার করা সর্ম্পূণ বেআইনি। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে যে কোন কমেন্সের জন্য কর্তৃপক্ষ দায়ী নয়।


Shares
error: Content is protected !!