| | বুধবার, ৩রা আশ্বিন, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ, ১৯শে মুহাররম, ১৪৪১ হিজরী |

চাঁপাইনবাবগঞ্জে পানি সরবরাহ প্রকল্পের মাধ্যমে সুপেয় পানির ব্যবস্থা করেছে সরকার

প্রকাশিতঃ ১১:২৪ অপরাহ্ণ | নভেম্বর ১৫, ২০১৮

ফয়সাল আজম অপু, চাঁপাইনবাবগঞ্জ থেকে : মানুষের জীবনের জন্য অতি প্রয়োজনীয় একটি হচ্ছে পানি। পানি ছাড়া জীবনে কোন কিছু চলবে না। তবে সে পানি হতে হবে বিশুদ্ধ। বাড়ির আশপাশে সহজে যাতে সুপেয় পানি পাওয়া যায় সে লক্ষে বর্তমান সরকার নিরলস কাজ করে যাচ্ছে। যে সব এলাকায় পানির সমস্যা সে সব এলাকায় পাইপ লাইনের মাধ্যমে পানি সরবরাহর ব্যবস্থাও করে দিচ্ছে সরকার। যা আজ দেশের বরেন্দ্র এলাকাগুলোতে দৃশ্যমান।

চাঁপাইনবাবগঞ্জের বরেন্দ্র অঞ্চলের ১০ টি ইউনিয়নে বিশুদ্ধ খাবার পানি সরবরাহের মহাপরিকল্পনা গ্রহণ করা হয়েছে ইতোমধ্যে। পরবর্তীতে প্রকল্পটি সম্প্রসারণ করে নওগাঁ ও রাজশাহী জেলার বরেন্দ্র এলাকায় বিশুদ্ধ পানি সরবরাহ করা হবে। চাঁপাইনবাবগঞ্জে ৫৩ কোটি টাকা ব্যয়ে এই প্রকল্প বাস্তবায়ন হবে।

চাঁপাইনবাবগঞ্জ জনস্বাস্থ্য প্রকৌশল অধিদপ্তরের নির্বাহী প্রকৌশলী আবুল কালাম আজাদ নিশ্চিত করেছেন এই প্রকল্পের কথা। একই সঙ্গে তিনি জানান, চাঁপাইনবাবগঞ্জে ইতোমধ্যেই দুটি প্রকল্প বাস্তবায়নের কাজ শুরু হয়েছে।

চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলার ১০টি ইউনিয়নে পাইপ লাইনের মাধ্যমে পানি সরবরাহ করা হবে। আগামী দুই বছরের মধ্যে ওভারহেড যুক্ত ১৭১ টি সাবমার্শিবল পাম্প স্থাপন করা হবে। এর মধ্যে বিদ্যুত চালিত পাম্পের জন্য ব্যয় ধরা হয়েছে প্রতিটিতে ৩ লাখ ২৭ হাজার টাকা। যেসব এলাকায় বিদ্যুত নেই সেখানে ব্যবহার করা হবে সোলার বিদ্যুত। ১৭টি পাম্প চলবে সোলার বিদ্যুতে। এর জন্য ব্যয় ধরা হয়েছে প্রায় ৭ লাখ টাকা। কমিউনিটি ভিত্তিক পানি সরবরাহ প্রকল্পের মাধ্যমে পল্লী অঞ্চল বিশুদ্ধ পানি সরবরাহের ফলে এক অনন্য ইতিহাসের সৃষ্টি হবে।

চাঁপাইনবাবগঞ্জ সদর উপজেলার ঝিলিম ইউনিয়নে ৬৫ টি। যার মধ্যে আমনুরা রেল জংশন রয়েছে। চাঁপাইনবাবগঞ্জ সদর উপজেলার গোবরাতলা ও বালিয়াডাঙ্গা ইউনিয়নের আংশিক এলাকায় ৬টি, নাচোল সদর, নেজামপুর, কসবা ও ফতেপুর ইউনিয়নে ৬৮টি। ইলামিত্রের নাচোল অঞ্চল হচ্ছে একেবারে আদি বরেন্দ্র অঞ্চল, গোমস্তাপুর উপজেলার পার্বতীপুর, রাধানগর ও রহনপুর ইউনিয়নে ৪২টি পাম্প স্থাপন করা হবে।

চাঁপাইনবাবগঞ্জ অঞ্চলের বরেন্দ্রর ১০টি ইউনিয়নে ১৭১টি পাম্প চালু হবার পর বদলে যাবে চিত্র। কারণ নাচোল অঞ্চলে এখনও খাবার পানির প্রধান উৎস হচ্ছে বড় বড় পুকুর। বিশেষ করে বরেন্দ্রর আদিবাসীরা প্রকল্পটির মাধ্যমে উপকৃত হবে। যাদের কাছে এতদিন বিশুদ্ধ পানি মানে পুকুরের পানি চিহ্নিত ছিল, তারা পাম্পের সাহায্যে পাবে বিশুদ্ধ পানি। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সরকারের প্রকল্পটি বাস্তবায়নে জনস্বাস্থ্য প্রকৌশল বিভাগ রাতদিন কাজ করে চলেছেন।

Matched Content

দৈনিক সময় সংবাদ ২৪ ডট কম সংবাদের কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি,আলোকচত্রি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে র্পূব অনুমতি ছাড়া ব্যবহার করা সর্ম্পূণ বেআইনি। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে যে কোন কমেন্সের জন্য কর্তৃপক্ষ দায়ী নয়।


Shares