| |

মীরসরাইয়ে কৃষকরা লাউ চাষে স্বাবলম্বী

প্রকাশিতঃ 9:10 pm | November 08, 2018

সানোয়ারুল ইসলাম রনি, মীরসরাই (চট্টগ্রাম) সংবাদদাতা  : মীরসরাই উপজেলায় লাউ চাষ করে আর্থিকভাবে স্বাবলম্বী হয়েছেন উপজেলার অগনিত কৃষক। স্বাস্থ্যসম্মত উপকারি সবজি লাউ চাষ করে অগনিত কৃষক এখন দারিদ্রতার অভিশাপ মুক্ত হয়ে সংসারের সকলের মুখে ও এখন ফুটে উঠেছে অনাবিল হাসি ।

সাহেরখালী ইউনিয়নের দক্ষিন মঘাদিয়া এক সময়ের দরিদ্র কৃষক জয়নাল আবেদিন। তিনি লাউ চাষে সফল হবার পর অনেকেই উৎসাহিত হচ্ছেন এখন লাউ চাষে। তার পরিশ্রম নিজেকে পরিণত করেছেনে অনুকরণীয় দৃষ্টান্তে । কৃষি কর্মকর্তার পরামর্শে বর্তমানে তিনি প্রায় ৩০ একর জমিতে পরামর্শে লাউের চারা রোপন করেন। লাউচাষি জয়নালকে অনুরকরণ করছে এখন পাশ্ববর্তি এলাকার অগনিত কৃষক।

লাউ চাষে উদ্বুদ্ধ হয়ে দুর্গাপুর এলাকার পাড়া কৃষক জসিম উদ্দিন ২০ শতাংশ জমিতে ২০০টি লাউ চারা রোপন করেন। মোট ক্ষেতের পেছনে ৬ হাজার টাকার মত খরচ করেন জসিম উদ্দিন। রোপনের ৩০দিন পরে ব্যয় বাদ দিয়েও লাউ বিক্রির ১৪ হাজার টাকা ঘরে আয়ের পুঁজি জমা করেন। পরে প্রতি সপ্তাহে ১ হাজার টাকার মত ব্যয় করে লাউ বিক্রি করে আয় করেন ৭ হাজার টাকার মত।
সহজ আবাদ ও কম খরচ দেখে উৎসাহিত হয়েছেন উপজেলার অনেক কৃষক।

উৎসাহিত হয়েছেন পার্শ্বের গ্রামের বাহার ও আমিন আলী নামে একই গ্রামের দুইজন কৃষক। তারা ১০ শতাংশ জমিতে ১৫০ টি লাউ চারা রোপন করেন ও রোপন থেকে গাছে লাউ ধরা পর্যন্ত মোট ব্যয় করেন মাত্র ৩ হাজার টাকা। লাউ ক্ষেতের পেছনে ব্যয় বাদ দিয়ে ৮ হাজার টাকা আয় করছেন বাহার ও আমিন আলী। তারা বলেন লাউ চাষে খরচ ও পরিশ্রম খুবই কম। রাসায়নিক সার, কীটনাশক, সেচ কোনটাই প্রয়োজন হয় না।

মীরসরাই উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা বুলবুল আহমেদ জানান, চলতি বছর উপজেলার বিভিন্ন ইউনিয়নে ২ শ’ একর জমিতে লাউ চাষ করা হয়েছে। এ বছর লক্ষ্যমাত্রা ধরা হয়েছে ৯০ হেক্টর। কৃষকের যে কোনো সমস্যা সমাধানে মাঠ পর্যায়ে কৃষি কর্মকর্তারা প্রয়োজনীয় পরামর্শ প্রদান করে আসছে। মীরসরাইয়ে লাউ চাষে জয়নালের মত অনেক কৃষক স্বাবলম্বী হয়েছে। ধীরে ধীরে এই উপজেলায় লাউ চাষ জনপ্রিয় হয়ে উঠছে।

প্রসঙ্গত, লাউ চারা রোপনের ২৫ দিন এর মধ্যে লাউ গাছে ফুল ও লাউ ধরা শুরু হয়। তার ৩০ একর জমিতে লাউ চারা রোপণের প্রথম দিন থেকে ৩০ দিনে মোট খরচ হয়েছে মাত্র ১২ হাজার ৮শত টাকার মত। মোটামোটি ৩০দিনের মধ্যে প্রত্যেক লাউ গাছে কচি লাউ বিক্রির যোগ্য হয়ে উঠে। তিনি ৩০দিন পরেই লাউ কাটলেন ৩শত ৫০টি যার প্রতিটি মূল্য পাইকারী ৪০টাকা হারে মোট ১৪ হাজার মত। এখন তিনি লাউ ক্ষেতে প্রতি সপ্তাহে ২বার করে ১ হাজার টাকা করে খরচ করেন। সপ্তাহে ২বার করে মোট ৭ হাজার টাকার মত লাউ বিক্রি করেন এবং লাভের মোটা অংকের টাকা সাংসারিক শান্তি সহ উন্নতিতে ও ভূমিকা রাখছেন। স্বাবলম্বী হয়েছেন সফল লাউ চাষী জয়নাল আবেদিন।


দৈনিক সময় সংবাদ ২৪ ডট কম সংবাদের কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি,আলোকচত্রি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে র্পূব অনুমতি ছাড়া ব্যবহার করা সর্ম্পূণ বেআইনি। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে যে কোন কমেন্সের জন্য কর্তৃপক্ষ দায়ী নয়।


Shares
error: Content is protected !!