| | রবিবার, ৩রা ভাদ্র, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ, ১৭ই জিলহজ্জ, ১৪৪০ হিজরী |

সহজ ম্যাচটা ভারতকে জিততে হলো কষ্ট করে

প্রকাশিতঃ ১০:৫১ পূর্বাহ্ণ | নভেম্বর ০৫, ২০১৮

স্পোর্টস ডেস্ক লক্ষ্য মাত্র ১১০ রানের। খেলাটা ভারতের নিজেদের মাটিতে। এই ১১০ রান তাড়া করতে নেমে টপ অর্ডারের ৫জন ব্যাটসম্যানের উইকেট খোয়াতে হয়েছে টিম ইন্ডিয়াকে। শেষ পর্যন্ত প্রথম টি-টোয়েন্টি ম্যাচে রোহিত শর্মার নেতৃত্বে ১৮তম ওভারে গিয়ে ৫ উইকেটের জয় নিয়ে মাঠ ছাড়তে পেরেছে স্বাগতিক ভারত।

ম্যাচটা ছিল কলকাতার ইডেন গার্ডেনে। ভারতের ম্যাচ, সেটা আবার কলকাতায়, গ্যালারিতে উপচে পড়া ভিড় থাকবে না, সেটা যেন হতেই পারে না। এই উপচে পড়া ভিড়কে অবশ্য সন্তুষ্ট করতে পারেনি রোহিত শর্মার দল। ১১০ রানের লক্ষ্য নিয়ে ব্যাট করতে নামার পর তো ওয়েস্ট ইন্ডিজ উড়েই যাওয়ার কথা, সেখানে কি না, ৫ উইকেট হারাতে হলো, খেলতে হলো ১৮ ওভার (১৭.৫)!

সফরের শুরুতেই ভারতের সঙ্গে টেস্ট এবং ওয়ানডে সিরিজ খেলেছে ওয়েস্ট ইন্ডিজ। দুই সিরিজেই হারলো তারা। তবে টি-টোয়েন্টিতে যে ক্যারিবীয়রা কিছুটা ব্যতিক্রম সেটা দেখা গেলো প্রথম ম্যাচেই। ১০৯ রান নিয়েও যে লড়াই দেখিয়েছে তারা, তা অবিশ্বাস্য। তবুও, হার তাদের। জয় দিয়ে সিরিজে এগিয়ে থাকলো স্বাগতিক ভারত।

ইডেনে টসে হেরে প্রথমে ব্যাট করতে নামে ওয়েস্ট ইন্ডিজ। নির্ধারিত ২০ ওভার ব্যাট করলেও ৮ উইকেট হারাতে হয়েছে তাদের এবং নিয়মিত বিরতিতে উইকেট পড়তে থাকায় বড় ইনিংস গড়াও সম্ভব হয়নি। টি-টোয়েন্টিতে অভিষিক্ত ফ্যাবিয়ান অ্যালেন ছাড়া বলার মতো রান করতে পারেননি কেউই। ভারতের সব বোলাররাই নিয়ন্ত্রিত বোলিং করছে। তবে বিধ্বংসী ছিলেন কুলদীপ যাদব। ৪ ওভারে মাত্র ১৩ রান দিয়ে ৩ উইকেট নিয়েছেন তিনি।

শুরুতেই দিনেশ রামদিন মাত্র ২ রান করে উমেশ যাদবের বলে উইকেটরক্ষক দিনেশ কার্তিকের হাতে ধরা পড়েন। শাই হোপ ১৪ রান করে হেটমায়ারের সঙ্গে ভুল বোঝাবুঝিতে রানআউট হন। ১০ রান করে হেটমায়ার উইকেট দেন বুমরাহকে। মুম্বাই ইন্ডিয়ান্সে রোহিতের সতীর্থ পোলার্ডের গুরুত্বপূর্ণ উইকেট তুলে নেন অভিষিক্ত ক্রুণাল পান্ডিয়া।

ড্যারেন ব্র্যাভো (৫), রোভম্যান পাওয়েল (৪) ও কার্লোস ব্রাথওয়েটকে (৪) পরপর ফিরিয়ে দেন কুলদীপ যাদব। দলের হয়ে সর্বোচ্চ ২৭ রান করে খলিল আহমেদের প্রথম আন্তর্জাতিক টি-টোয়েন্টি শিকার হন অ্যালেন। কিমো পল ১৫ ও পিয়ের ৯ রান করে অপরাজিত থাকেন।

জবাবে ব্যাট করতে নেমে ভারতকেও শুরুতে নড়বড়ে দেখায়। পয়া ভেন্যু ইডেনে রোহিত শর্মা আউট হন মাত্র ৬ রান করে। শিধর ধাওয়ানের ব্যাডপ্যাচ কাটার লক্ষ্মণ ছিল না। তিনি আউট হন ৩ রান করে। রিশভ পান্ত নিজের প্রিয় টি-টোয়েন্টি ফরম্যাটে ফিরে ১ রানের বেশি যোগান দিতে পারেননি দলের ইনিংসে।

ডাগআউটে দীর্ঘ অপেক্ষার পর মাঠে ফিরে লোকেশ রাহুলের সংগ্রহ ১৬ রান। একদা নাইট রাউডার্সের হয়ে ইডেন মাতানো মনিশ পান্ডে আউট হন ১৯ রান করে। অভিষিক্ত ক্রুণালকে নিয়ে ভারতকে জয়ের লক্ষ্যে পৌঁছে দেন নাইট অধিনায়ক দিনেশ কার্তিক। নিজের আইপিএল হোম গ্রাউন্ডে কার্তিক অপরাজিত থাকেন ৩১ রানের কার্যকরী ইনিংস খেলে। ক্রুণাল অপরাজিত থাকেন ব্যক্তিগত ২১ রানে। ম্যাচের সেরার পুরস্কার উঠেছে কুলদীপের হাতে।

Matched Content

দৈনিক সময় সংবাদ ২৪ ডট কম সংবাদের কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি,আলোকচত্রি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে র্পূব অনুমতি ছাড়া ব্যবহার করা সর্ম্পূণ বেআইনি। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে যে কোন কমেন্সের জন্য কর্তৃপক্ষ দায়ী নয়।


Shares