| | মঙ্গলবার, ২রা আশ্বিন, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ, ১৮ই মুহাররম, ১৪৪১ হিজরী |

মীরসরাইয়ে যুবককে পাহাড়ের পাদদেশে নিয়ে কুপিয়ে হত্যা

প্রকাশিতঃ ১:০২ অপরাহ্ণ | নভেম্বর ০১, ২০১৮

সানোয়ারুল ইসলাম রনি, মীরসরাই (চট্টগ্রাম) সংবাদদাতা : মীরসরাই উপজেলার ওয়াহেদপর ইউনিয়নের মধ্যম ওয়াহেদপুর এলাকায় শাহ আলম নামের এক যুবককে পূর্ব শক্রুতার জের ধরে পাহাড়ের পাদদেশে নিয়ে কুপিয়ে হত্যা করেছে প্রতিপক্ষ কয়েকজন যুবক। বুধবার (৩১ অক্টোবর) রাত ৮ টায় এই হত্যার ঘটনা ঘটেছে। নিহত শাহ আলম ওই এলাকার আলী আকবরের পুত্র।

মীরসরাই থানা পুলিশ ও হাসপাতাল সূত্রে জানা গেছে, মীরসরাই উপজেলার ওয়াহেদপর ইউনিয়নের মধ্যম ওয়াহেদপুর এলাকায় শাহ আলম (৩০) নামের এক যুবককে কুপিয়ে হত্যা করেছে প্রতিপক্ষ কয়েকজন যুবক। নিজামপুর বাজারের একটি ওয়ার্কশপে সে ম্যানেজার হিসেবে কর্মরত ছিল। স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, শাহ আলমের সাথে কিছুদিন ধরে একই এলাকার কয়েকজন ছেলের সাথে বিরোধ চলে আসছিলো। বুধবার সন্ধ্যায় তাকে পাহাড়ের পাদদেশে নিয়ে ধারালো অস্ত্র দিয়ে এলোপাতাড়ি কুপিয়ে রেখে যায়। পরে আশপাশের লোকজন তাকে উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে কর্তৃব্যরত চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন।

মস্তাননগর হাসপাতালের কর্তব্যরত চিকিৎসক ডাঃ সুমন ঘোষ জানান, জখম হওয়া যুবক শাহ আলমকে রাত ৮ টার পর এখানে নিয়ে আসা হয়। কিন্তু তখন আমরা তাকে মৃত পাই। তার শরীরের বিভিন্ন অংশে ধারালো অস্ত্র দ্বারা কুপিয়ে ও পিটিয়ে মারার চিহ্র পাওয়া গেছে।

এই বিষয়ে মীরসরাই থানার ওসি জাহিদুল কবির জানান, ঘটনার খবর পেয়ে ওসি তদন্ত বিপুল দেবনাথ ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়ে উক্ত হত্যাকান্ডের বিস্তারিত তথ্য সংগ্রহ করতে সক্ষম হয়েছে। হত্যাকারীদের আটক সহ প্রয়োজনীয় আইনগত ব্যবস্থার স্বার্থে আমরা হত্যাকারীদের নাম এই মুহুর্তে প্রকাশ করছি না।

ওসি জাহিদ আরো জানান, মৃতদেহ পোষ্টমর্টেম এর জন্য চমেক প্রেরণ করা হয়েছে। উক্ত ঘটনার মামলা ও প্রক্রিয়াধিন। নিহত যুবকের পারিবারিক সূত্রে জানা গেছে শাহ আলম এর পিতা আলী আকবর এই বিষয়ে নির্ধারিত কয়েকজন যুবককে আসামী করে হত্যা মামলার প্রস্তুতি নিচ্ছে।

Matched Content

দৈনিক সময় সংবাদ ২৪ ডট কম সংবাদের কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি,আলোকচত্রি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে র্পূব অনুমতি ছাড়া ব্যবহার করা সর্ম্পূণ বেআইনি। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে যে কোন কমেন্সের জন্য কর্তৃপক্ষ দায়ী নয়।


Shares