| |

পটিয়ার শহিদ মুক্তিযোদ্ধা শাহ আলম সড়কে মানুষের দূর্ভোগ

বাংলাদেশের জনপ্রিয় ও সর্বশেষ খবর পেতে আ্যপসটি ইনস্টল করুন

প্রকাশিতঃ 10:24 pm | October 31, 2018

পটিয়া (চট্টগ্রাম) থেকে সেলিম চৌধুরী : চট্টগ্রামের পটিয়া উপজেলার কচুয়াই ইউনিয়নের শহীদ মুক্তিযোদ্ধা শাহ আলম সড়কে মানুষের দূর্ভোগ । গত কয়েকদিনের গুঁড়ি গুঁড়ি বৃষ্টি ছাড়াও এই সড়কটি দীর্ঘদিন ধরে সংস্কার কাজ না করায় বিভিন্ন জায়গায় বৃষ্টির পানি জমে রয়েছে। যার কারণে এলাকার লোকজন ও শিক্ষার্থীদের নানাভাবে দুর্ভোগের শিকার হতে হচ্ছে।

চট্টগ্রাম-কক্সবাজার আরকান মহা সড়কের পটিয়া কমলমুন্সির হাটের পরে জলুরদিঘি এলাকার পূর্ব দিকে শহীদ মুক্তিযোদ্ধা শাহ আলম সড়কটি। মহা সড়কের শুরু থেকে রাস্তা ১ কিলোমিটার কার্পেটিং রয়েছে এবং বাকী দেড় কিলোমিটার সড়কের বেহাল অবস্থা হয়েছে। কচুয়াই ইউনিয়নের ৯নং ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য কামাল উদ্দিন ও মহিলা ইউপি সদস্য সেলিনা আকতারের বাড়ি এলাকা। এই সড়ক দিয়ে পার্শ্ববর্তী খরনা ইউনিয়নের যাওযার পথও রয়েছে।

যোগাযোগ ব্যবস্থার বেহাল অবস্থা সৃষ্টি হওয়ায় গ্রামবাসীকে দুর্ভোগের শিকার হতে হচ্ছেন। কচুয়াই ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান এস,এম, ইনজামুল হক জসিম স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদপ্তর (এলজিইডি) পটিয়ার প্রকৌশলীকে সড়কটির ব্যাপারে অবগত করেছেন। গুরুত্বপূর্ণ এই সড়কের শেষ সীমানায় মুক্তিযোদ্ধা শাহ আলমের নামে সরকারি একটি প্রাথমিক বিদ্যালয় রয়েছে।

ওই স্কুলের শিক্ষার্থী ছাড়াও খরনা ইউনিয়ন ও কচুয়াই ইউনিয়নের লোকজন প্রতিদিন ভুগান্তির শিকার হচ্ছেন। সড়কের বেহাল অবস্থার কারণে রিক্সা পর্যন্ত চলচল করতে পারছে না।

এলাকাবাসী ও এলজিইডি সূত্রে জানা গেছে, উপজেলার কচুয়াই ইউনিয়নের জলুরদিঘি এলাকার পূর্ব দিকে যাওয়া শহীদ শাহ আলম সড়কটি খুবই গুরুত্বপূর্ণ। এই সড়কের এক কিলোমিটার কার্পেটিং রয়েছে এবং সড়কের দুই পাশে বিভিন্ন প্রজাতির বৃক্ষ সড়কটিকে দৃষ্টিনন্দন করলেও সড়কের বাকী অংশে কোন কাজ না করায় বর্তমানে চলাচল অযোগ্য। ২০১৮ সালের ২১ মার্চ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা শহীদ শাহ আলম সড়কের পাশে হেলিকপ্টার থেকে নেমে দক্ষিণ জেলা আওয়ামী লীগের পটিয়ার সম্মেলনে যোগদান করেন।

খরনা ইউনিয়নের ৭,৮ ও ৯নং ওয়ার্ডের মহিলা মেম্বার সেলিনা আকতার ক্ষোভ প্রকাশ করে বলেন, শহীদ মুক্তিযোদ্ধা শাহ আলম সড়কের এখন অস্থিত্ব নেই। সড়কের শুরুতে এক কিলোমিটার কার্পেটিং করা হলেও বাকী দেড় কিলোমিটার সড়কের কাজ না করায় এলাকাবাসীকে দুর্ভোগের শিকার হচ্ছেন। এই সড়ক দিয়ে খরনা ইউনিয়নের লোকজনও চলাচল করে থাকে। তাছাড়া সড়কের শেষ সীমানায় রয়েছে বেশকিছু মৎস্য প্রজেক্ট ও পাহাড়ি এলাকা। সড়কটি দ্রুত সংস্কারের জন্য কৃষক, মৎস্যচাষী ও গ্রামবাসী দাবি জানিয়েছেন।

স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদপ্তর পটিয়ার উপ-সহকারী প্রকৌশলী শংকর কুমার দে জানিয়েছেন, শহীদ শাহ আলম সড়কটি এক কিলোমিটার কার্পেটিং রয়েছে। বাকী সড়ক কার্পেটিং এর জন্য প্রাক্কলন প্রস্তুত করে উর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের নিকট পাঠিয়েছে। কার্পেটিং এর প্রাক্কলন বাস্তবায়ন হলে তা টেন্ডারের মাধ্যমে সড়কের কাজ সম্পন্ন করা হবে।


দৈনিক সময় সংবাদ ২৪ ডট কম সংবাদের কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি,আলোকচত্রি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে র্পূব অনুমতি ছাড়া ব্যবহার করা সর্ম্পূণ বেআইনি। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে যে কোন কমেন্সের জন্য কর্তৃপক্ষ দায়ী নয়।


Shares
error: Content is protected !!