| |

দীর্ঘদিনের বিরোধ নিস্পত্তি করে কাঁদে কাঁদ মিলিয়ে দিলেন সহকারী পুলিশ সুপার আলমগীর পিপিএম

প্রকাশিতঃ 7:35 pm | October 11, 2018

জোটন চন্দ্র ঘোষ, হালুয়াঘাট : হালুয়াঘাট সার্কেলের সহকারী পুলিশ সুপার এর হস্তক্ষেপে দীর্ঘ ৫ বছর যাবত বসতবাড়ীর সীমানা নিয়ে চলমান একাদিক মামলা মোকাদ্দমা থেকে বাদী বিবাদীদের বিরোধ নিস্পত্তি করে কাঁদে কাঁদ মিলিয়ে দিলেন সহকারী পুলিশ সুপার আলমগীর পিপিএম।

বৃহস্পতিবার দুপুরে নিজ কার্যালয়ে ধোবাউড়া উপজেলার বতিহালা গ্রামের মৃত আব্দুল আলীর পুত্র কাসেম আলী ও একই গ্রামের প্রতিবেশী মৃত কিতাব আলীর পুত্র জাফর আলীর সাথে বসতবাড়ীর ২.৫০ শতাংশ জমি নিয়ে দীর্ঘ পাঁচ বছর যাবত একাদিক মামলা মোকাদ্দমা বিজ্ঞ আদালতে চলমান ছিল।

সম্প্রতি আবুল কাসেম বিরোধের নিস্পত্তি কল্পে হালুয়াঘাট সহকারী পুলিশ সুপারের নিকট একটি লিখিত আবেদন দাখিল করেন। উক্ত আবেদনের প্রেক্ষিতে সহকারী পুলিশ সুপার সম্প্রতি ঘটনাস্থল পরির্দশন করে বাদী বিবাদী উভয় পক্ষসহ স্থানীয় গন্যমান্য ব্যক্তিদের উপস্তিতিতে জমির সীমানা নির্ধারণ করে আজ দুপুরে উভয় পক্ষকে কাঁদে কাঁদ মিলিয়ে সৃষ্ট বিরোধের নিস্পতি করে দেন। পাশাপাশি একে অপরের সাথে মিলেমিশে বসবাস করার আহবান জানান।

এসময় উভয় পক্ষ চলমান বিরোধের নিস্পত্তি করায় সহকারী পুলিশ সুপারের নিকট কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন। কাসেম আলী জানান, তিনি তিনটি মামলা মোকাদ্দমায় জড়িয়ে অর্থনৈতিক ভাবে ক্ষতিগ্রস্থ হয়েছেন। তাই দ্রুত বিরোধ সমাধানের জন্য আবেদন করেছিলেন। তার আবেদনটি আমলে নিয়ে সৃষ্ট সমস্যা সমাধান করায় সহকারী পুলিশ সুপার আলমগীর পিপিএমকে ধন্যবাদ জানান। মহান আল্লাহ্তালা যেন এই পুলিশ কর্মকর্তার মঙ্গল করেন।

জানা যায়, এ পুলিশ কর্মকর্তা হালুয়াঘাট সার্কেলে যোগদানের পর থেকে হালুয়াঘাট- ধোবাউড়া এবং তারাকান্দা ও ফুলপুরের প্রায় শতাধিক মামলা মোকাদ্দমায় জর্জরিত পরিবারকে চলমান বিরোধ নিস্পত্তি করে মহানুভতার পরিচয় দিয়েছেন। এই পুলিশ কর্মকর্তা বর্তমানে হালুয়াঘাট ও ফুলপুর সার্কেলের সহকারী পুলিশ সুপারের দ্বায়িত্ব পালন করছেন।


দৈনিক সময় সংবাদ ২৪ ডট কম সংবাদের কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি,আলোকচত্রি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে র্পূব অনুমতি ছাড়া ব্যবহার করা সর্ম্পূণ বেআইনি। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে যে কোন কমেন্সের জন্য কর্তৃপক্ষ দায়ী নয়।


Shares
error: Content is protected !!