| | মঙ্গলবার, ৫ই ভাদ্র, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ, ১৯শে জিলহজ্জ, ১৪৪০ হিজরী |

বর্তমান সরকারের প্রচেষ্টা অব্যাহত থাকলে দশ বছরের মধ্যে শিক্ষার মান বিশ্ব পর্যায়ে উন্নীত হবে: উপাচার্য

প্রকাশিতঃ ৯:৩৫ অপরাহ্ণ | সেপ্টেম্বর ২৬, ২০১৮

আতিয়ার রহমান ,খুলনা অফিস : খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়ের ড. সত্যেন্দ্রনাথ বসু একাডেমিক ভবনের ইউআরপি ডিসিপ্লিনের লেকচার থিয়েটারে ‘ন্যাশনাল কোয়ালিফিকেশন্স ফ্রেমওয়ার্ক অব বাংলাদেশ (এনকিউএফবি)’ শীর্ষক দিনব্যাপী এক আঞ্চলিক কর্মশালা ২৬ সেপ্টেম্বর, বুধবার, সকাল ১০টায় অনুষ্ঠিত হয়। খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য প্রফেসর ড. মোহাম্মদ ফায়েক উজ্জামান প্রধান অতিথির বক্তব্য প্রদান শেষে উক্ত কর্মশালার উদ্বোধন করেন।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি বলেন দেশে বিভিন্ন স্তরের বহুমুখী শিক্ষা ব্যবস্থাকে একটি সামঞ্জস্যপূর্ণ ও সুপরিকল্পিত কাঠামোর মধ্যে আনায়ন এবং গুণগতমান নিশ্চিত করতে বর্তমান সরকার বিগত কয়েক বছর ধরে নানামুখী উদ্যোগ গ্রহণ করেছে। এ লক্ষ্যে প্রাথমিক স্তর থেকে উচ্চশিক্ষার স্তর পর্যন্ত উচ্চশিক্ষার মান্নোয়ন প্রকল্প (হেকেপ) সহ বিভিন্ন প্রকল্প বাস্তবায়িত হচ্ছে। স্বাধীনতাত্তোরকালে এমনকি বলা যায় ১৯৪৭ সালের পর এদেশের শিক্ষা ব্যবস্থাকে যুগোপযোগী করতে এমন পদক্ষেপ আর কোনো সরকার গ্রহণ করেনি।
তিনি আরও বলেন শিক্ষাক্ষেত্রে বর্তমান সরকার জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের স্বপ্ন অতিক্রম করেছে।

ন্যাশনাল কোয়ালিফিকেশন্স ফ্রেমওয়ার্ক অব বাংলাদেশ চূড়ান্ত হলে এবং তা বাস্তবায়ন শুরু হলে দেশের উচ্চশিক্ষার যুগান্তকারী পরিবর্তন আসবে। আর প্রাথমিক, মাধ্যমিক, কারিগরি এবং উচ্চশিক্ষা ব্যবস্থার মান্নোয়নে বর্তমান সরকারের সার্বিক প্রচেষ্টা অব্যাহত থাকলে আগামী দশবছরের মধ্যে বাংলাদেশের শিক্ষার মান বিশ্ব পর্যায়ে উন্নীত হবে বলে তিনি আশাবাদ ব্যক্ত করেন।

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য প্রফেসর ড. এস এম ইমামুল হক, খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়ের ট্রেজারার প্রফেসর সাধন রঞ্জন ঘোষ, বাংলাদেশ বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরী কমিশনের অধীন কোয়ালিটি অ্যাসুরেন্স ইউনিট (কিউইউএ) এর প্রধান প্রফেসর ড. সঞ্জয় কুমার অধিকারী।

কর্মশালায় সভাপতিত্ব করেন খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়ের ইনস্টিটিউশনাল কোয়ালিটি অ্যাসুরেন্স সেলের (আইকিউএসি) পরিচালক প্রফেসর ড. আহমেদ আহসানুজ্জামান। উদ্বোধনী পর্বের সঞ্চালনা করেন আইকিউএসির অতিরিক্ত পরিচালক প্রফেসর ড. সমীর কুমার সাধু। উদ্বোধনীর পর ন্যাশনাল কোয়ালিফিকেশন্স ফ্রেমওয়ার্ক এর খসড়া নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা অনুষ্ঠিত হয়। পাওয়ার পয়েন্টে এই খসড়াটি উপস্থাপন করেন কোয়ালিটি অ্যাসুরেন্স স্পেশালিষ্ট ড. আহমদে তাজমিন। উপস্থাপিত খসড়ার উপর আলোচনা ও প্রশ্নোত্তর পর্ব অনুষ্ঠিত হয় এবং অংশগ্রহণকারীগণ তাদের সুচিন্তিত অভিমত নির্দিষ্ট ফরমে পেশ করেন।

এ কর্মশালায় বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ের ডিন, শিক্ষাবিদ, প্রশাসনের বিভিন্ন পর্যায়ের কর্মকর্তা, টেকনোক্র্যাটস, অধ্যক্ষ, নিয়োগকর্র্তা, সাংবাদিক এবং শিক্ষার্থীসহ বিভিন্ন শ্রেণি-পেশার ১৪০ জন প্রতিনিধি অংশগ্রহণ করেন।

উল্লেখ্য, দি ন্যাশনাল কোয়ালিফিকেশন্স ফ্রেমওয়ার্ক অব বাংলাদেশ হচ্ছে এমন একটি ইন্সট্রুমেন্ট যা আমাদের ছাত্রদের অর্জিত জ্ঞান, দক্ষতা ও যোগ্যতা যা বর্তমানে বিভিন্ন ডিগ্রির মাধ্যমে প্রকাশিত তার শ্রেণিবিন্যাস, বিকাশ ও স্বীকৃতির একটি কাঠামো দেয়। এই কাঠামো জ্ঞান, দক্ষতা ও যোগ্যতার কতগুলো ধারাবাহিক ও আন্তঃসম্পর্কের লেভেল বা স্তরের উপর প্রতিষ্ঠিত এবং বৈশ্বিকমানের সাথে সঙ্গতিপূর্ণ। মাধ্যমিক পরবর্তী শিক্ষা, বয়স্ক শিক্ষা ও জীবনব্যাপী শিক্ষা এই কাঠামোর আওতায় পড়ে।

বাংলাদেশ বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরী কমিশনের অধীন উচ্চ শিক্ষার মানোন্নয়ন প্রকল্পের (হেকেপ) সহযোগিতায় কোয়ালিটি অ্যাসুরেন্স ইউনিট (কিউইউএ) প্রণীত এই ন্যাশনাল কোয়ালিফিকেশন্স ফ্রেমওয়ার্ক এর খসড়া দেশের বিভিন্ন অঞ্চলে নির্বাচিত কয়েকটি বিশ্ববিদ্যালয়ে আঞ্চলিক পর্যায়ে উপস্থাপন করা হচ্ছে। এ সম্পর্কিত খুলনাঞ্চলের কর্মশালাটি খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়ে অনুষ্ঠিত হয়। এ ধরনের আঞ্চলিক আরেকটি কর্মশালা শীঘ্রই রাজশাহীতে অনুষ্ঠিত হবে।

আঞ্চলিক কর্মশালা শেষে জাতীয় পর্যায়ে কর্মশালা অনুষ্ঠানের মাধ্যমে দি ন্যাশনাল কোয়ালিফিকেশন্স ফ্রেমওয়ার্ক অব বাংলাদেশ চূড়ান্ত করা হবে। এরপর যথাযথ প্রক্রিয়া অনুসরণ করে তা সরকারের কাছে পেশ করা হবে এবং সরকার এটি অনুমোদন দিলে বাংলাদেশ অ্যাক্রেডিটেশন কাউন্সিল কর্তৃক বাস্তবায়িত হবে।##

Matched Content

দৈনিক সময় সংবাদ ২৪ ডট কম সংবাদের কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি,আলোকচত্রি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে র্পূব অনুমতি ছাড়া ব্যবহার করা সর্ম্পূণ বেআইনি। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে যে কোন কমেন্সের জন্য কর্তৃপক্ষ দায়ী নয়।


Shares