| |

বছরের পর বছর মুখ থুবড়ে পড়ে আছে মীরসরাই পাবলিক লাইব্রেরী

প্রকাশিতঃ 10:45 pm | August 11, 2018

সানোয়ারুল ইসলাম রনি, মীরসরাই চট্টগ্রাম : দীর্ঘ তিন দশক ধরে অভিভাবকহীন অবস্থায় চলছে মীরসরাই পাবলিক লাইব্রেরি। নাগরিকদের জ্ঞান চর্চার সুযোগ অবারিত করতে সরকারী ভাবে পাবলিক লাইব্রেরি চালু করলেও এর কোন সুফল পাচ্ছেনা মীরসরাইবাসী। শুধুমাত্র কয়েকটি পত্রিকা পাঠের মধ্যেই সীমাবদ্ধ এর কার্যক্রম।

শত- সহ¯্র পাঠক থাকা স্বত্বে ও নেই বই, নেই উপযুক্ত পরিবেশ, আবার কেয়ারটেকার দিয়েই চলছে লাইব্রেয়ানের দায়িত্ব। গত ১৫ বছর ধরে এই লাইব্রেরির দায়িত্বে আছেন দৃশ্যতঃ আবু তাহের নামের এক ব্যক্তি। সকাল ৯টা থেকে বিকেল ৫টা পর্যন্ত সপ্তাহের ৫দিন খোলা থাকে লাইব্রেরী। শুক্রবার ও শনিবার সরকারী ছুটির দিন হওয়ায় বন্ধ থাকে লাইব্রেরী। অথচ সপ্তাহের ছুটির দিন চাকুরীজীবি সহ ছাত্র-ছাত্রীরা ফ্রি থাকেন বই পড়ার জন্য কিন্তু সে সময় বন্ধ থাকে লাইব্রেরী।

সরেজমিনে দেখা যায়, দুটি আলমারী এবং দুটি সেলফে কিছু বই আছে, যেগুলো অনেক পুরোনো। লাইব্রেরীতে ১২টি চেয়ার আর ৩টি টেবিল ভালো আছে; বাকী ৬টি চেয়ার ভাঙ্গা অবস্থায় পড়ে আছে দীর্ঘদিন। আজ থেকে দশ বছর আগে নতুন বই আনা হয়েছে লাইব্রেরীতে। নতুন প্রজন্মের পছন্দ সহ কোন বই না থাকায় কেউ সেলফ থেকে বই পড়তে আগ্রহী হয়না।

বাসায় নিয়ে গিয়ে বই পড়ার সুযোগ নাই বলে কেউ লাইব্রেরীতে আসে না। আর আসলেও বসে বই পড়ার মতো কোন অবস্থা নেই। স্যাঁতস্যাঁতে ফ্লোর, ভাঙ্গা চেয়ার, অন্ধকারচন্ন কক্ষে প্রবেশ মাত্র শরীর শিউরে উঠে। মনে হয় যেন কোলাহলমুক্ত নির্জন ভূতের বাড়ি। পাবলিক লাইব্রেরীর ভেতরে বসবাস করেন আবু তাহের। তিনি লাইব্রেরীর দেখাশুনা করেন। লাইব্রেরীতে যে বইগুলো আছে তাও সব সময় আলমারীতে তালাবদ্ধ থাকে। ফলে বই পড়তে আসার জন্য কেউ আর তেমন আগ্রহ দেখায় না।

উপজেলা সড়ক উঁচু করে আরসিসি ঢালাই দিয়ে দেওয়ায় এবং জেলা পরিষদ ডাক বাংলোর ড্রেন দীর্ঘদিন পরিষ্কার না করায় উপজেলার অন্যান্য স্থাপনার চেয়ে পাবলিক লাইব্রেরীর ফ্লোর নীচু হয়ে গেছে। ফলে সামান্য বৃষ্টির পানিতে লাইব্রেরীর ফ্লোরে পানি উঠে যায়।

এছাড়া উপজেলা কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারের নির্মাণ কাজ চলার ফলে পানি নিষ্কাষনের পথ পুরোটাই বন্ধ হয়ে গেছে। শুধু জেলা পরিষদ পাবলিক লাইব্রেরী নয় জেলা পরিষদ ডাক বাংলো, জেলা পরিষদ মীরসরাই অডিটোরিয়াম সবগুলোর একই অবস্থা। সরকার কোটি টাকা ব্যায় করে এসব স্থাপনা নির্মাণ করলে তা উপজেলাবাসীর কোন কাজে আসছেনা। অযতœ আর অবহেলার কারণে নষ্ট হচ্ছে এসব স্থাপনা। মীরসরাই অর্থনৈতিক অঞ্চল নির্মাণ কাজ পরিদর্শন কিংবা দাপ্তরিক দায়িত্ব পালনের জন্য যেসব সরকারী উচ্চ পদস্থ কর্মকর্তা আসেন তাদের অনেকেই অবকাশ যাপনের জন্য জেলা পরিষদ ডাক বাংলোতে উঠেন। কিন্তু এমন অব্যবস্থাপনা দেখে তারা অল্প সময় থেকেই ফিরে যান।

পাবলিক লাইব্রেরিতে গিয়ে দেখা যায়, পাঠকশুন্য অবস্থায় রয়েছে লাইব্রেরি কক্ষ। টেবিলে কিছু দৈনিক পত্রিকা ছড়িয়ে ছিটিয়ে আছে। লাইব্রেরির দয়িত্বে থাকা আবু তাহের জানান, আমি দীর্ঘ ১৫ বছর ধরে এই লাইব্রেরির তত্ত্বাবধানে আছি। আমার পদ কি আমি জানিনা। এর মধ্যে লাইব্রেরিয়ান পদে দুই জন কর্মকর্তা এসেছিলেন। দুই তিন মাসের বেশি তারা থাকেননি।

উক্ত পাবলিক লাইব্রেরিতে নিয়মিত পত্রিকা পড়তে যাওয়া একাধিক পাঠক নাম প্রকাশ না করার শর্তে বলেন, এখানে নেই আগের মত পাঠক সমাগম। সারাদিন কিছু খালি চেয়ার আর আগোছালো দু একটা পত্রিকা পড়ে থাকে। এখানে নেই তেমন কোন নতুন বইয়ের সংগ্রহ। তরুণ প্রজন্ম নতুন নতুন বিজ্ঞানভিত্তিক বই পড়তে পছন্দ করে। কিন্তু পাঠাগারের সেলফে চোখে পড়লো না তেমন কোন উল্লেখযোগ্য খ্যাতিমান লেখকের বই। চোখে পড়লো না হুমায়ুন আহমেদ, জাফর ইকবাল, আহসান হাবীব, আনিসুল হকের মত লেখকদের বই।

মীরসরাই বিশ্ববিদ্যালয় কলেজের একাধিক শিক্ষার্থী জানায়, জ্ঞান চর্চার জন্য মীরসরাই পাবালিক লাইব্রেরিতে একাধিকাবার গিয়েছিলাম। এখানে শিক্ষার্থীদের উপযোগী কোন বই নেই। যেসব বই পাওয়া যায় তারও কোনটার আবার গুরুত্বপূর্ণ পৃষ্ঠা বা ছবিগুলো থাকে কাটা ছেঁড়া। তাছাড়া বেশিরভাগ বইয়ের মধ্যে একদিকে যেমন ধুলির আস্তরণ তেমনি অন্য দিকে পাঙ্গাস পড়ে নষ্ট হচ্ছে বইয়ের পাতা।

এ বিষয়ে মীরসরাই উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোহাম্মদ সাইফুল কবির জানান, পাবালিক লাইব্রেরি জেলা পরিষদ কর্তৃক পরিচালনাধীন। উপজেলার উন্নয়ন কর্মসূচীতে এই লাইব্রেরিকেও সম্পৃক্ত করা হয়েছে। পাবলিক লাইব্রেরির আধুনিকায়ন এবং বহুতল ভবন নির্মানের জন্য সংশ্লিষ্ট দপ্তরে আমি লিখিতভাবে জানিয়েছি। আশা করছি মীরসরাইবাসী অচিরেই পাবলিক লাইব্রেরির সুফল পাবে।


দৈনিক সময় সংবাদ ২৪ ডট কম সংবাদের কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি,আলোকচত্রি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে র্পূব অনুমতি ছাড়া ব্যবহার করা সর্ম্পূণ বেআইনি। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে যে কোন কমেন্সের জন্য কর্তৃপক্ষ দায়ী নয়।


Shares
error: Content is protected !!