| |

কোটচাঁদপুর তালাকপ্রাপ্ত স্বামীর হাসুয়ার কোপে স্ত্রীসহ আহত তিন

প্রকাশিতঃ 1:18 am | July 23, 2018

সুমন মালাকার,কোটচাঁদপুর (ঝিনাইদহ) প্রতিনিধি : কোটচাঁদপুর তালাকপ্রাপ্ত স্বামীর হাসুয়ার কোপে স্ত্রী সহ তিন জন আহত। কোটচাঁদপুর উপজেলার কাগমারী গ্রামের মাঠপাড়ায় রবিবার সন্ধ্যা ৮ টার দিকে তালাকপ্রাপ্ত স্বামীর হাসুয়ার কোপে স্ত্রীসহ তিন জন আহত হয়েছে। আহতরা হলেন স্ত্রী ময়ূরী(২৩), পিতা বাহার আলী(৫৫) ও বড় বোন শাপলা(২৮)।
স্থানীয় সূত্রে জানাযায়, গত এক দেড় বছর আগে কাগমারী গ্রামের মাঠপাড়ার বাবর আলীর ছেলে সবুজের সাথে একই পাড়ার বাহার আলীর ছোট মেয়ে ময়ূরীর সাথে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে এবং তারা বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হন। কিন্তু পড়ে জানতে পারেন সবুজ নেশাখোর এবং নেশা করে এসে তার স্ত্রীকে মারধর করত। এর পরিপেক্ষিতে গত এক সপ্তাহ আগে গ্রাম্য সালিশের মাধ্যমে আপোষ ভাবে তারা তালাক প্রাপ্ত হন।
আহত শাপলা জানান, রবিবার সন্ধ্যায় আমি ও আমার বোন ময়ূরী এক ঘরে ছিলাম অন্য ঘরে আমার পিতা বাহার আলী ছিলেন হঠাৎ করে আমরা চিৎকারের আওয়াজ শুনে বাইরে এসে দেখি সবুজ একটি ধারালো হাসুয়া দিয়ে আব্বাকে কোপদিচ্ছেন। আমরা ঠেকাতে গেলে আমাকে ও আমার বোনকেও এলোপাথাড়ি কোপ দেন এতে আমার বাম হাতে, ছোট বোনের দুই কাধে, মাথায় ও দুই হাতের আঙ্গুলে কোপ দেয়। ছোট বনের দুই হাতে মধ্যে ডান হাতে তিনটি আঙ্গুল এবং বাম হাতের দুইটি আঙ্গুল কেটে পড়ে গেছে। আমাদের চিৎকার চেঁচামেচি শুনে পাশের লোকজন এসে সবুজকে ধরে ফেলে এবং পরে পুলিশে সর্পোদ করেন।
স্থানীয়রা আহতদের উদ্ধার করে কোটচাঁদপুর হাতপাতালে নিয়ে আসেন। কোটচাঁদপুর হাপাতালের কর্তব্যরত ডাক্তার নাজমুস সাকিব জানান, আহতদের প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে ভর্তি করা হয়েছে এবং এর মধ্যে ময়ূরীর অবস্থা গ্রুরতর হওয়ায় তাকে যশোর জেনারেল হাসপাতালে রের্ফাড করা হয়েছে।
কোটচাঁদপুর থানার অফিসার ইনচার্জ বিপ্লব কুমার সাহা ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে জানান, আসামী সবুজকে পুলিশ গ্রেফতার করেছে এবং ঘটনার বিষয়ে মামলা প্রক্রিয়াধীন।

দৈনিক সময় সংবাদ ২৪ ডট কম সংবাদের কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি,আলোকচত্রি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে র্পূব অনুমতি ছাড়া ব্যবহার করা সর্ম্পূণ বেআইনি। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে যে কোন কমেন্সের জন্য কর্তৃপক্ষ দায়ী নয়।