| |

ভালুকায় এক রাজ মিস্ত্রীর পোড়া লাশ উদ্ধার আটক-১

প্রকাশিতঃ 9:59 pm | May 16, 2018

ভালুকা (ময়মনসিংহ) থেকে তমাল কান্তি সরকার : ময়মনসিংহের ভালুকা উপজেলার দক্ষিণ হবিরবাড়ী এলাকা থেকে উজ্জল (৩০) নামের এক রাজমিস্ত্রীর লাশ মঙ্গলবার বিকালে পুলিশ উদ্ধার করে। ঘটনার সাথে জড়িত থাকার অভিযোগে পুলিশ এনামুল নামের একজনকে আটক করেছে। পুলিশের ধারণা উজ্জলকে প্রথমে শ্বাসরুদ্ধ করে হত্যার পরে গায়ে কেরোসিন অথবা পেট্রোল দিয়ে আগুন ধরিয়ে দেয়।

নিহত পরিবার ও পুলিশ সূত্রে জানা যায়,গত প্রায় তিন মাস পূর্বে পার্শ্ববর্তী শ্রীপূর উপজেলার আবদার গ্রামের দুলাল মিয়ার ছেলে এনামুল হকের সাথে নিহত উজ্জল ছোট ভাই জাহাঙ্গীর আলমের ঝগড়া হয়। এ ঘটনার জের ধরে এনামুল ২০ পিচ ইয়াবা দিয়ে জাহাঙ্গীরকে শ্রীপুর থানার পুলিশ দিয়ে আটক করায়। পরে মাদক মামলায় জাহাঙ্গীর ২ মাস হাজত খাটে।

জেল থেকে বের হয়ে জাহাঙ্গীর ও তার বড় ভাই উজ্জল মিলে এনামুলকে মারধর করে। ওই ঘটনার পর থেকে এনামুল জাহাঙ্গীরদেরকে বিভিন্ন ভাবে হুমকী দিয়ে আসছিলো। উজ্জল গত সোমবার বাড়িতে বলে যায় তার বকেয়া বেতনর জন্য তার ঠিকাদার রেজাউলের কাছে যাচ্ছে। রাত ৮ টার পর থেকে সে নিখোঁজ হয়।

মঙ্গলবার দুপুরে হবিরবাড়ির শাহজাদার নির্জণ ভিটার মাঝে পোড়া লাশ দেখে আশপাশের লোকজন এসে উজ্জলের লাশ সনাক্ত করে। এ ঘটনায় পুলিশ শ্রীপূর উপজেলার আবদার গ্রামের দুলাল মিয়ার ছেলে এনামুল হক (৩০) কে ভালুকা মডেল থানার পুলিশ আটক করেছে।

জাহাঙ্গীর দাবী করেন,ইয়াবা সহ পুলিশ দিয়ে তাকে গ্রেফতারের পর থেকে এনামুল তাদেরকে নানা ভাবে হুমকী দিয়ে আসছিলো। সে হুমকীর প্রেক্ষিতে তার ভাইকে এনামুলের নেতৃত্বে হত্যা করে আগুনে পুড়িয়ে লাশ নিশ্চি‎হ্ন করতে চেয়ে ছিলো। উজ্জল মিয়া শ্রীপুর উপজেলার আবদার গ্রামের সাত্তার মিয়া বাড়িতে ভাড়া থেকে রাজমিস্ত্রীর কাজ করতো। তাঁর বাড়ি কিশোরগঞ্জ জেলার পাকুন্দিয়া উপজেলার চরকাউনা গ্রামে তার পিতার নাম সুরুজ মিয়া

ভালুকা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) ফিরোজ তালুুকদার বলেন, ৩/৪ জনে মিলে উজ্জলকে প্রথমে শ্বাসরুদ্ধ করে হত্যা করে পরে নিহতের গায়ে কেরোসিন অথবা পেট্রোল ঢেলে আগুন ধরিয়ে দেয়। ঘটনার সাথে জড়িত থাকার অভিযোগে একজন কে আটক করা হয়েছে। লাশ উদ্ধার করে থানায় নিয়ে আসা হয়েছে। মামলার প্রস্তুতি চলছে।


দৈনিক সময় সংবাদ ২৪ ডট কম সংবাদের কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি,আলোকচত্রি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে র্পূব অনুমতি ছাড়া ব্যবহার করা সর্ম্পূণ বেআইনি। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে যে কোন কমেন্সের জন্য কর্তৃপক্ষ দায়ী নয়।