| |

কয়লা খনি শ্রমিক কর্মচারী ইউনিয়ন সমন্বয় কমিটির ৬ দফা দাবি আদায়ে বিক্ষোভ মিছিল

প্রকাশিতঃ 9:05 pm | May 13, 2018

ফুলবাড়ী দিনাজপুর প্রতিনিধি : দিনাজপুরের বড়পুকুরিয়া কয়লা খনি শ্রমিক কর্মচারী ইউনিয়নের ১৩ দফা ও ক্ষতিগ্রস্থ ২০ গ্রামের সমন্বয় কমিটির ৬ দফা দাবি আদায়ে খনি এলাকায় বিক্ষোভ মিছিল ও ধর্মঘট অব্যাহত।

গতকাল রবিবার ১৩ই মে সকাল ৬টা থেকে দিনাজপুরের বড়পুকুরিয়া কয়লা খনির প্রধান গেটের সামনে শ্রমিক কর্মচারী ইউনিয়ন ও খনির ক্ষতিগ্রস্থ ২০ গ্রামের সমন্বয় কমিটির ১৩ দফা ও ৬ দফা দাবি আদায়ের লক্ষ্যে তারা দাবি আদায়ে বিক্ষোভ মিছিল ও ধর্মঘট শুরু করেছে। আজ রবিবার থেকে তাদের ধর্মঘট শুরু হয়।

আন্দোলনকারীরা গত ১২ইমে শনিবার খনি কর্তৃপক্ষকে আলটিমেটাম দেয়। তাদের দাবি দাওয়া মেনে নিলে তারা আন্দোলনে যাবেনা। কিন্তু খনি কর্তৃপক্ষ ২টি সংগঠনের দাবি মেনে না নেওয়ায় তারা ১৩ই মে সকাল ৬টা থেকে খনি চত্তর এলাকায় বিক্ষোভ মিছিল শুরু করে।

গতকাল রবিবার খনির প্রধান গেটে খনির শ্রমিক ও ২০ গ্রামের সমন্বয় কমিটির নেতৃবৃন্দরা খনির গেট থেকে যৌথভাবে এক বিশাল বিক্ষোভ মিছিল বের করে খনি এলাকায় প্রদক্ষিণ করে খনির প্রধান গেটে এসে শেষ করেন। এ সময় বক্তব্য রাখেন বড়পুকুরিয়া কয়লা খনি শ্রমিক কর্মচারী ইউনিয়নের সভাপতি মোঃ রবিউল ইসলাম (রবি)। তিনি বলেন, আমাদের এই দাবি ন্যায় সঙ্গত। কিন্তু খনি কর্তৃপক্ষ আমাদের দাবি মেনে না নেওয়ায় আমরা বাধ্য হয়েছি ধর্মঘটে যেতে।

যতদিন না আমাদের ১৩ দফা দাবি ও ২০ গ্রামের সমন্বয় কমিটির ৬ দফা দাবি মেনে না নিবে ততদিন কোন শ্রমিক ও সমন্বয় কমিটির কোন লোকজন কাজে যোগদান করবে না ও ঘরে ফিরবে না। আমরা জীবনের ঝুঁকি নিয়ে ভূ-গর্ভে কাজ করি। এতে অনেক শ্রমিক আহত ও নিহত হয়েছে। তাদের পরিবারকে আমরা কিছু দিতে পারি নাই।

বড়পুকুরিয়া কয়লা খনির প্রধান গেটে ধর্মঘট চলাকালে বক্তব্য রাখেন বড়পুকুরিয়া কয়লা খনি শ্রমিক কর্মচারী ইউনিয়নের সভাপতি মোঃ রবিউল ইসলাম, সাধারণ সম্পাদক মোঃ আবু সুফিয়ান, সাবেক সভাপতি মোঃ ওয়াজেদ আলী, সাবেক সাধারণ সম্পাদক মোঃ নূর ইসলাম, সাংগঠনিক সম্পাদক মোঃ লিটন হোসেন, ক্ষতিগ্রস্থ ২০ গ্রামের সমন্বয় কমিটির মোঃ মিজানুর রহমান, সাবেক ইউপি সদস্য মোঃ জাবেদ, বীর মুক্তিযোদ্ধা মোঃ নুরুল ইসলাম, খনি এলাকায় বিশিষ্ট্য ব্যবসায়ী মোঃ আনোয়ার হোসেন।

বড়পুকুরিয়া শ্রমিক কর্মচারী ইউনিয়ন ও খনির ক্ষতিগ্রস্থ ২০ গ্রামের সমন্বয় কমিটি তাদের দাবির বিষয়ে ধর্মঘটে যাওয়ায় বড়পুকুরিয়া কোল মাইনিং কোম্পানী লিঃ এর ব্যবস্থাপনা পরিচালক প্রকৌশলী আলহাজ্ব হাবিব উদ্দিন এর সাথে গতকাল রবিবার ০১৭১১৫২৫৪৩৩ নম্বরে কথা বললে তিনি জানান, প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রী মহোদয় আন্দোলনকারী নেতাদেরকে বলেছেন, পেট্রো বাংলার চেয়ারম্যান দেশের বাহিরে রয়েছে।

তিনি দেশে ফিরলেই শ্রমিকদের ও ২০ গ্রামের সমন্বয় কমিটির নেতৃবৃন্দের সাথে বসে বিষয়গুলি খতিয়ে দেখা হবে। আন্দোলনকারীদেরকে ব্যবস্থাপনা পরিচালক বলেছেন, পেট্রো বাংলার চেয়ারম্যান দেশের বাহিরে রয়েছে। তিনি ফিরে এলে আপনাদের দাবির বিষয়গুলি তুলে ধরা হবে।

ইতি:মধ্যে আন্দোলনের বিষয়টিও জানিয়ে দেওয়া হয়েছে। আমার এখানে করণীয় কিছু নেই। উর্দ্ধতন কর্তৃপক্ষের কোন নির্দেশ ছাড়া আমার করার কিছু নেই। অথচ আন্দোলনকারীরা আমাকে দোষারোপ করছে।


দৈনিক সময় সংবাদ ২৪ ডট কম সংবাদের কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি,আলোকচত্রি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে র্পূব অনুমতি ছাড়া ব্যবহার করা সর্ম্পূণ বেআইনি। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে যে কোন কমেন্সের জন্য কর্তৃপক্ষ দায়ী নয়।


Shares
error: Content is protected !!