| |

অপরাধ ১১ স্বামী, শাস্তি পাথর ছুড়ে হত্যা

বাংলাদেশের জনপ্রিয় ও সর্বশেষ খবর পেতে আ্যপসটি ইনস্টল করুন

প্রকাশিতঃ 10:07 pm | May 10, 2018

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : সোমালিয়ার আল-শাবাব জঙ্গিগোষ্ঠী পরিচালিত একটি আদালত এক নারীকে একাধিক স্বামী থাকার অপরাধে দোষী সাব্যস্ত করার পর তাকে পাথর মেরে হত্যা করা হয়েছে।

ওই নারীর নাম শুকরি আব্দুল্লাহি ওয়ারসাম। তার বিরুদ্ধে অভিযোগ আনা হয় তিনি ১১ বার বিয়ে করেছেন এবং আগের কোনো স্বামীর সঙ্গেই তার বিবাহ বিচ্ছেদ হয়নি।

সোমালিয়ার দক্ষিণাঞ্চলের শহর সাব্লালের বাসিন্দারা বলছেন, আল শাবাবের জঙ্গিরা তাকে গলা পর্যন্ত মাটিতে পুঁতে রেখে তারপর পাথর ছুড়ে হত্যা করেছে।

আল শাবাব শরিয়া আইনের কঠোর ব্যাখ্যা দিয়ে থাকে।

সোমালিয়ার একটা বড় অঞ্চল নিজেদের দখলে রেখেছে আল শাবাব এবং দেশটির সরকারকে উৎখাতে প্রায়ই তারা হামলা চালিয়ে থাকে।

মোহাম্মদ আবু উসামা নামে আল শাবাবের একজন গভর্নর রয়টার্সকে বলেছেন, শুকরি আব্দুল্লাহির বৈধ স্বামীসহ তার ৯ স্বামীকে আদালতে হাজির করা হয়, তারা প্রত্যেকে শুকরিকে নিজের স্ত্রী বলে দাবি করে।

ইসলামিক আইন অনুযায়ী, একজন নারীর একাধিক স্বামী থাকা অবৈধ, তবে পুরুষদের চারটি পর্যন্ত স্ত্রী থাকার বিধান রয়েছে। স্বামী-স্ত্রী উভয়েরই বিবাহ বিচ্ছেদ করার সুযোগ থাকলেও স্ত্রী বিচ্ছেদ চাইলে তাকে স্বামীর সম্মতি চাইতে হবে। স্বামী সম্মতি না দিলে স্ত্রী আদালতে যেতে পারবেন।

আল শাবাবের প্রচারমাধ্যমে বলা হয়েছে, শুকরিকে যখন আদালতে হাজির করা হয় তখন তিনি সম্পূর্ণ সুস্থ ছিলেন এবং তারা বিরুদ্ধে আনা অভিযোগে তিনি দোষী সাব্যস্ত হন।

ধর্মীয় বিধানের লঙ্ঘনে আল শাবাবের জঙ্গিরা প্রায়ই কঠোর শারীরিক শাস্তি দিয়ে থাকে। সূত্র : বিবিসি।


দৈনিক সময় সংবাদ ২৪ ডট কম সংবাদের কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি,আলোকচত্রি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে র্পূব অনুমতি ছাড়া ব্যবহার করা সর্ম্পূণ বেআইনি। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে যে কোন কমেন্সের জন্য কর্তৃপক্ষ দায়ী নয়।


Shares
error: Content is protected !!