| |

হালুয়াঘাট পৌরসভা নির্বাচনে কে হবেন প্রথম নগরপিতা ? প্রতিদন্ধিতায়-৬ প্রার্থী

প্রকাশিতঃ 8:56 pm | March 05, 2018

হালুয়াঘাট(ময়মনসিংহ) প্রতিনিধি ঃ আগামী ২৯ মার্চ ময়মনসিংহের সীমান্তবর্তী হালুয়াঘাট পৌরসভায় অনুষ্ঠিত নির্বাচনকে ঘিরে প্রার্থীদের নিরব গনসংযোগ আর প্রচার প্রচারনায় নির্বাচনী উত্তাপ বইতে শুরু করেছে। ভোটের হিসাব কষছেন সাধারণ ভোটার সহ প্রতিদন্ধি প্রার্থীগণ।

হালুয়াঘাট পৌরসভার নির্বাচনে বড় দুই দলের শীর্ষ প্রার্থী তালিকায় রয়েছেন উপজেলা আওয়ামীলীগের যুগ্ন সম্পাদক বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের মনোনীত নৌকা প্রতীকের প্রার্থী খায়রুল আলম ভুঞা, উপজেলা বি.এন.পি’র সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক ও হালুয়াঘাট সদর ইউনিয়ন পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান ধানের শীষ প্রতীকের মনোনীত প্রার্থী আব্দুল হামিদ। স্বতন্ত্র প্রার্থী যুবলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক আব্দুল মোতালেব, উপজেলা বি.এন.পি’র যুগ্ন আহবায়ক ও হালুয়াঘাট ব্যবসায়ী উন্নয়ন সমিতির সভাপতি স্বতন্ত্র প্রার্থী নাদিম আহাম্মেদ।

এছাড়াও দলের বাইরে স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে রয়েছেন হালুয়াঘাট সদর ইউনিয়ন পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান ছালেহ আহম্মেদ ও উপজেলা পুজা উদযাপন পরিষদের সভাপতি প্রশান্ত কুমার সাহা।

হালুয়াঘাট পৌরসভার প্রথম নির্বাচনে ইতিহাসের প্রথম নগর পিতা কে হবেন এ নিয়ে চলছে সাধারণ ভোটারদের মাঝে আলোচনার ঝড়।

উপজেলা আওয়ামীলীগের যুগ্ন সম্পাদক বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের মনোনীত নৌকা প্রতীকের প্রার্থী খায়রুল আলম ভুঞা বলেন, হালুয়াঘাট পৌরসভা বা¯Íবায়নে প্রয়াত সমাজকল্যাণ প্রতিমন্ত্রী এডভোকেট প্রমোদ মানকিন এমপি মহোদয়ের নির্দেশনায় আমার শ্রম, মেধা, ঘাম ঝরানো কর্মকান্ড এবং দলের প্রতি ভালবাসা ও হালুয়াঘাট পৌরসভার উন্নয়নে মনোনীত কাউন্সিলর হিসাবে দিন-রাত পরিশ্রমের ফসল হিসাবে দলের মনোনয়ন পেয়েছেন জনগনের ভোটে তিনি নির্বাচিত হবেন বলে দৃঢ় প্রত্যয় ব্যাক্ত করেন।

যুবলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক স্বতন্ত্র প্রার্থী আব্দুল মোতালেব বলেন, তিনি গরীবের সন্তান হিসাবে আমার গোত্রীয় প্রায় দুই হাজার ভোট ব্যাংক রয়েছে যা অন্য কোন প্রার্থীর নেই তাছাড়া এলাকায় সকল শ্রেণী পেশার মানুষের সাথে রয়েছে আমার নিবির সম্পর্ক,ভোটারদের মন জয় করে পৌরবাসীর বিশ্বস্থ নগরপিতা হিসাবে নাম লেখাতে চান ইতিহাসে।

উপজেলা বি.এন.পি’র সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক ও সাবেক চেয়ারম্যান ধানের শীষ প্রতীকের মনোনীত প্রার্থী আব্দুল হামিদ বলেন, দীর্ঘদিন যাবৎ শহীদ জিয়ার আদর্শকে লালন করে নিঃস্বার্থভাবে দল ও মানুষের জন্যে কাজ কওে আসছেন। প্রতিদানে দল আমাকে মনোনয়ন দিয়েছেন সুষ্ঠ ও নিরপেÿ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হলে তিনি বিজয়ী হবেন বলে আশা ব্যাক্ত করেন।

উপজেলা বি.এন.পি’র যুগ্ন আহবায়ক ও হালুয়াঘাট ব্যবসায়ী সমিতির সভাপতি স্বতন্ত্র প্রার্থী নাদিম আহাম্মেদ বলেন, জন্ম লগ্ন থেকে শহীদ জিয়ার আদর্শকে লালন করে রাজনীতি করে আসছি। মানুষের পাশে থাকার চেষ্টা করেছি। পৌরসভার ব্যবসায়ী ও সর্বসাধারণের জন্য পানীয় জলের ব্যবস্থা, ডেনেজ ব্যবস্থা সহ নানা উন্নয়নে আমার অংশ গ্রহণ রয়েছে। আমার সমিতির প্রায় দুই হাজার ভোটারের সাথে সুসম্পর্ক জনমতের ভিত্তিতে নিরপেÿ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হলে তিনি বিজয়ের মালা পরবেন বলে জানান।

উপজেলা পুজা উদযাপন পরিষদের সভাপতি প্রশান্ত কুমার সাহা বলেন, এলাকার জনগন এবং বিশেষ করে আমার প্রায় আড়াই হাজার ভোটার হিন্দু ভায়েরা ঐক্যবদ্ধ ভাবে আমাকে সহযোগিতা করলে নগর পিতা হিসাবে নাম লেখাতে চান ইতিহাসের পাতায়।

হালুয়াঘাট সদর ইউনিয়ন পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান ছালেহ আহম্মেদ বলেন, দীর্ঘ ১৫ বছর ধরে জনগনের সেবা করছি, আচার বিচার, আপদ বিপদ, জন্ম মৃত্যু, এলাকার উন্নয়নসহ সকল কাজে মানুষের পাশে ছিলাম। আমি চেয়ারম্যান থাকাকালীন সময়ে কারো ক্ষতি করিনাই। আমি মানুষের ১৫বছরের পরিক্ষিত সেবক, তাই পৌরসভা নির্বাচনে পরিক্ষিত ব্যক্তি হিসেবে তাকেই ভোটারগণ বিজয়ী করবেন বলে আশা ব্যাক্ত করেন ।

অভিজ্ঞ রাজনীতিবিদের মতে, পৌর নির্বাচনে বড় দুই দলের চেয়ে ভোট যুদ্ধে লাভবান হতে পারেন স্বতন্ত্র প্রার্থীগন। কারণ হিসেবে বড় দুই দলের বিদ্রোহী প্রার্থী থাকাকেই মনে করেন। পৌর এলাকার ভোটারদের সাথে কথা বললে তারা বলেন, আমরা চাই একজন যোগ্যপ্রার্থী, সৎ ও কর্মঠ এবং ভাল মানুষ যার মাধ্যমে পৌর এলাকার সার্বিক উন্নয়ন সাধিত হবে । মাদক ও নেশা মুক্ত যুব সমাজ গঠিত হবে। সন্ত্রাস মুক্ত, আধুনিক হালুয়াঘাট পৌরসভা গঠন হবে। পরিচ্ছন্ন বাজার, ড্রেনেজ ব্যবস্থাসহ মানুষের আস্থার কেন্দ্র বিন্দুতে পরিণত হবে। এমন প্রত্যাশায় নির্বাচনের আশায় দিন গুনছেন হালুয়াঘাট পৌরবাসী।


দৈনিক সময় সংবাদ ২৪ ডট কম সংবাদের কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি,আলোকচত্রি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে র্পূব অনুমতি ছাড়া ব্যবহার করা সর্ম্পূণ বেআইনি। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে যে কোন কমেন্সের জন্য কর্তৃপক্ষ দায়ী নয়।