| |

কোটচাঁদপুর ৩০ পিচ সোনার বারসহ আটক-২

প্রকাশিতঃ 11:27 pm | January 19, 2018

সুমন মালাকার, কোটচাঁদপুর (ঝিনাইদহ) প্রতিনিধি: বৃহস্পতিবার ভোর রাতে কোটচাঁদপুর ও মহেশপুর থানা পুলিশ ৩০ পিচ সোনার বারসহ দুই ডাকাতকে কোটচাঁদপুর থেকে আটক করেছে।

গত ৪ জানুয়ারী গভীর রাতে ঢাকা থেকে ছেড়ে আসা সোনারতরী পরিবহনের একটি নৈশ্য কোচ কোটচাঁদপুর-জীবনগনর সড়কের মহেশপুর উপজেলার পুরন্দপুর স্থানে পৌছালে ডাকাতিরা হানা দিয়ে ৬৫ টি সোনার বার নিয়ে পালিয়ে যায়। এ ঘটনায় ৭ জানুয়ারী মহেশপুর থানার এসআই আনিচুর রহমান বাদি হয়ে ৭-৮ জনের নামে অজ্ঞাত মামলা করেন। পরে জেলা গোয়েন্দা পুলিশ ও মহেশপুর থানা পুলিশ একযোগে অনুসন্ধ্যান শুরু করে আসামীদের শনাক্ত করে। পরবর্তীতে গত বৃহস্পতিবার (১৭ জানুয়ারী) ঢাকা গাবতলী সোনারতরী পরিবহন কাউন্টার থেকে কোটচাঁদপুর পোষ্ট অফিস পাড়ার ডাক্তার আবুল কাশেমের ছেলে আশরাফুল আলম পটলা (৪৮) ও একই এলাকার আদর্শ পাড়ার মৃত মিজানুর রহমানের ছেলে হারুনুর রশিদ ওরফে মিলন (২৮) কে নিজ বাসা থেকে আটক করে।

পরে তাদের স্বীকারোক্তি অনুযায়ী মহেশপুর ও কোটচাঁদপুর থানার পুলিশের যৌথ অভিযানে পটলার বাসা থেকে ২১ পিচ ও মিলনের বাসা থেকে ৯ পিচ সোনার বার উদ্ধার করেন। যার ওজন ৩ কেজি ৪০০ গ্রাম যার বর্তমান বাজার মূল্য ১ কোটি ২০ লক্ষ টাকা।

মহেশপুর থানা অফিসার ইনচার্জ (ওসি), আহম্মেদ কবীর হোসেন ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে পটলা ও মিলন ডাকাতির সাথে সম্পৃক্ততা ছিল এবং ৪৭ পিচ সোনার বারের কথা স্বীকার করেন। তিনি আরো জানান, বাকি সোনা উদ্ধারের জোর চেষ্টা চলছে। উল্লেখ্য গত ৭ ও ৮ জানুয়ারী এসআই নাজমুলহক ও এসআই আনিচুর রহমানসহ ৬ (ছয়) কনস্টেবলকে দায়িত্ব অবহেলার কারণে প্রত্যাহার করা হয়েছে।


দৈনিক সময় সংবাদ ২৪ ডট কম সংবাদের কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি,আলোকচত্রি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে র্পূব অনুমতি ছাড়া ব্যবহার করা সর্ম্পূণ বেআইনি। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে যে কোন কমেন্সের জন্য কর্তৃপক্ষ দায়ী নয়।