| |

কর্ণফুলীর বড়উঠানে প্রবাসীর ঘরে ডাকাতির পর চার নারীকে ধর্ষণ

প্রকাশিতঃ 6:45 pm | December 18, 2017

পটিয়া (চট্টগ্রাম) থেকে সেলিম চৌধুরী : চট্টগ্রামের পটিয়ার কর্ণফুলী উপজেলাধীন বড়উঠান ইউনিয়নের ৪নং ওয়ার্ড শাহমীরপুর গ্রামে প্রবাসীর ঘরে ডাকাতির পর চার নারীকে ধর্ষণের অভিযোগ পাওয়া গেছে। গত মঙ্গলবার রাতে ডাকাত দল হানা দিয়ে ১০ ভরি স্বর্ণ অলংকার মালামাল লুট করার পর এ ঘটনা ঘটায়। ডাকাতি ও ধষর্ণের ঘটনায় বুধবার পরিবারের পক্ষ থেকে কর্ণফুলী থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দেওয়া হলেও পুলিশ আইনগত ব্যবস্থা না নিয়ে উল্টো অভিযোগকারীকে নানাভাবে বিব্রত করেছেন বলে অভিযোগ করেন ভুক্তভোগী পরিবারের সদস্য ও স্থানীয় জনপ্রতিনিধিরা।

সমাজের লোক লজ্জায় সংবাদ কর্মীদের এ ঘটনাটি তাৎক্ষণিক জানায়নি বলে পরিবার সূত্র জানায়। ক্ষতিগ্রস্থদের ধারণা ডাকাতিতে অংশ নেয়া অনেকের বাড়ী ঘটনাস্থলের আশেপাশে। গতকাল রবিবার ১১ টায় ঐ পরিবারের লোকজন স্থানীয় এমপি ও ভূমি মন্ত্রী সাইফুজ্জামান চৌধুরী জাবেদের সাথে দেখা করে বিষয়টি অবহিত করেন। এসময় তিনি ২৪ ঘন্টার মধ্য আসামীদের গ্রেফতার সহ প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়ার জন্য চট্টগ্রাম পুলিশ কমিশনারকে নির্দেশ দেন। কর্ণফুলী থানার ওসি (তদন্ত) হাসান ইমাম ঘটনাস্থলে গিয়ে ডাকাতি ও ধর্ষণের দায়ে পৃথক ২টি মামলা দায়ের করেন।

জানা যায়, পাকা দালানের চারটি কক্ষে নারীদের ধর্ষণ করে। এসময় ডাকাতরা ঘরে থাকা দেড় বছরের শিশু ও বৃদ্ধ মহিলাকে ছুরি ও অস্ত্রের মুখে জিম্মি করে রাখেন বলে মামলার এজাহার সূত্রে জানা যায়। প্রবাসীর তিন গৃহবধূ সহ চার নারীকে ডাকাত দলের ধষর্ণের সময় চিৎকার করতে পারেনি। বড় উঠান ইউপির চেয়ারম্যান দিদারুল আলম জানান, ঘটনাটি তিনি একদিন পরেই জানতে পারেন। পুলিশকে এব্যাপারে জানানো হলেও তাৎক্ষণিক তারা ঘটনাস্থলে যায়নি এবং আইনগত ব্যবস্থা নিতে গড়িমসি করেছেন।

কর্ণফুলী থানার ওসি ছৈয়দুল মোস্তাফা জানান, ডাকাতি ধর্ষণের ঘটনায় পৃথক দুটি মামলা রুজু হয়েছে। পুলিশের অবহেলা আলামত নষ্ট হওয়ার বিষয়টি তিনি অস্বীকার করেন।

কর্ণফুলী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা বিজেন ব্যানার্জী বলেন, এ ঘটনা খুবই দু:খজনক। ক্ষতিগ্রস্থ পরিবারকে নিরাপত্তা দেওয়ার জন্য সব ধরণের ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে। বর্তমানে ঐ চার নারী চমেক হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন বলে রহমত আলী জানান।

(প্রতীকী ছবি)


দৈনিক সময় সংবাদ ২৪ ডট কম সংবাদের কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি,আলোকচত্রি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে র্পূব অনুমতি ছাড়া ব্যবহার করা সর্ম্পূণ বেআইনি। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে যে কোন কমেন্সের জন্য কর্তৃপক্ষ দায়ী নয়।