| |

পটিয়ায় যৌতুক নির্যাতনের শিকার গৃহবধূকে মারধর করে ঘরে তালাবদ্ধ

বাংলাদেশের জনপ্রিয় ও সর্বশেষ খবর পেতে আ্যপসটি ইনস্টল করুন

প্রকাশিতঃ 10:05 pm | December 01, 2017

পটিয়া (চট্টগ্রাম) থেকে সেলিম চৌধুরী : পটিয়া উপজেলার আলমদারপাড়া গ্রামের আহম্মদ নবী মাঝির বাড়ীতে গৃহবধূ মনোয়ারা বেগম (৩০) কে তার স্বামী ও শ^শুর বাড়ীর লোকজন যৌতুক নির্যাাতন চালিয়ে মারধর করে ঘরে তালাবদ্ধ করে রাখার অভিযোগ পাওয়া গেছে।

ঘটনাটি ঘটেছে গত ২৯ নভেম্বর সাড়ে ৯ টায়। এ ঘটনায় মনোয়ারা বেগমের ভাই আবুল হাশেম মিন্টু বাদী হয়ে গত ৩০ নভেম্বর গিয়াস উদ্দিন, ফাতেমা বেগম, আহম্মদ নবী, নাসরিন আকতারের বিরুদ্ধে অভিযোগ নং-৪০২৫/১৭ইং দায়ের করেছে।
থানার দায়েরকৃত অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, দক্ষিণ ভূর্ষি ইউনিয়নের ডেঙ্গা পাড়া গ্রামের হাজী আলী আহমদের কন্যা মনোয়ারা বেগমকে উপজেলার ছনহরা ইউনিয়নের আলমদারপাড়া গ্রামের আহম্মদ নবী মাঝির পুত্র গিয়াস উদ্দিনের সাথে গত ১৭ বছর পূর্বে ইসলামী শরীয়ত মোতাবেক বিবাহ হয়।

তাদের মধ্যে ৩টি সন্তান রয়েছে। কিন্তু মনোয়ারা বেগম গত ১৭ বছর ধরে বিভিন্ন সময় যৌতুক নির্যাতনের শিকার হয়ে আসছেন। এব্যাপারে বেশ কয়েকবার শালিশ বিচারের মাধ্যমে আপোস মিমাংসা করে দেয়। গত ২৯ নভেম্বর স্বামী গিয়াস উদ্দিন সহ অপর বিবাদীগন মনোয়ারা বেগমকে যৌতুকের জন্য মারধর করে ঘরে তালাবদ্ধ করে রাখলে গত ৩০ নভেম্বর দুপুরে পটিয়া থানা পুলিশ তাকে উদ্ধার করে। এব্যাপারে মনোয়ারা বেগমের পরিবার পটিয়া থানার ওসি শেখ নেয়ামত উল্লাহ (পিপিএম) এর তদন্ত সাপেক্ষে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়ার দাবি জানিয়েছে।

(প্রতীকী ছবি)


দৈনিক সময় সংবাদ ২৪ ডট কম সংবাদের কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি,আলোকচত্রি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে র্পূব অনুমতি ছাড়া ব্যবহার করা সর্ম্পূণ বেআইনি। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে যে কোন কমেন্সের জন্য কর্তৃপক্ষ দায়ী নয়।


Shares
error: Content is protected !!